ajodhya pahar
ছবি: ফেসবুক থেকে

পুরুলিয়া: অযোধ্যা পাহাড়ে পর্যটনের প্রসারে হোমস্টে প্রকল্পর ওপরে জোর দিয়েছে জেলা প্রশাসন। বর্তমানে অযোধ্যা পাহাড়ে পর্যটকদের জন্য রাত্রিবাসের জায়গা বেশ কমই। সেই অভাব পূরণ করতেই এই উদ্যোগ।

দক্ষিণবঙ্গের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ এই অযোধ্যা পাহাড়েই হয়েছে (২,৮০০ ফুট)। পাশাপাশি এই অঞ্চলকে কাজে লাগিয়ে অনেক পাহাড় চড়ার প্রশিক্ষণও  আয়োজিত হয়। সেই কারণেই এই উদ্যোগ। ইতিমধ্যে হোমস্টে তৈরি করার জন্য গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথাবার্তা বলছে জেলা প্রশাসন।

সরকারি এক আধিকারিকের কথায়, “অযোধ্যা পাহাড় সংলগ্ন এলাকায় পর্যটনের প্রসারের জন্যে এই প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। যাঁরা যাঁরা নিজের বাড়িতে হোমস্টে হিসেবে কাজে লাগাতে ইচ্ছুক তাঁদের কাছ থেকে জমি চেয়েছে সরকার। তাদের বাড়ির কিছুটা অংশ হোমস্টে হিসেবে কাজে লাগানো হবে। সেই সঙ্গে তৈরি করা হবে নতুন কটেজও। এর ফলে গ্রামবাসীদের আর্থিক সাচ্ছলতাও আসবে।”

আরও পড়ুন জঙ্গল, পাহাড় ও কাঞ্চনময় তিনচুলে

বাগমুন্ডির বিডিও অভিষেক বিশ্বাস বলেন, যে গ্রামবাসী এই হোমস্টে প্রকল্পে ইচ্ছুক তাদের অতিথি আপ্যায়নের ব্যাপারে আলাদা ভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।উল্লেখ্য, গত বছর ডিসেম্বরে অযোধ্যা পাহাড়ে একটি যুব আবাস খোলা হয়। এ ছাড়াও কম্প্রিহেনসিভ এরিয়া ডেভেলপমেন্টেরও গেস্ট হাউস রয়েছে অযোধ্যা পাহাড়ে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন