কলকাতা: দোলের সময় শান্তিনিকেতন যেতে চান অনেকেই, কিন্তু হোটেলে জায়গার অভাবে সেটা হয়ে ওঠে না। দুঃখ করবেন না, দোলের এক সপ্তাহ পরেই পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন উন্নয়ন নিগমের প্যাকেজে ঘুরে আসুন শান্তিনিকেতন। শান্তিনিকেতনের পাশাপাশি বীরভূমের সতী পিঠ বা শক্তি পিঠ দেখানোর ব্যবস্থা থাকছে এই প্যাকেজে।

দু’রাত তিন দিনের এই প্যাকেজ শুরু হবে ১৭ মার্চ। সকাল আটটায় বিবাদী বাগের ট্যুরিজম সেন্টার থেকে বাস ছাড়বে। বেলা বারোটা নাগাদ শান্তিনিকেতন টুরিস্ট লজে পৌঁছবে বাস। মধ্যাহ্নভোজনের পালা শেষ করে ওই দিন দুপুরে পর্যটকরা নিজেদের মতো করে শান্তিনিকেতন ঘুরে নিতে পারেন। ওই দিন সন্ধ্যায় টুরিস্ট লজে লোকগীতি গানের ব্যাবস্থাও রেখেছে পর্যটন দফতর।

পরের দিন অর্থাৎ ১৮ তারিখ সক্কালেই রওনা। প্রথমে তারাপীঠ দর্শন। এর পর বীরভূমের সতী পিঠ দর্শন শুরু হবে নলহাটির নলাটেশ্বরী মন্দির দিয়ে। সেখান থেকে পর্যটকরা যাবেন সাঁইথিয়ার নন্দীকিশোরী মন্দির। সিউড়িতে দুপুরে মধ্যাহ্নভোজনের পর্ব মিটিয়ে এ বার যাওয়া হবে বক্রেশ্বরে। সেখানকার উষ্ণপ্রস্রবণ আর মন্দির দেখে সন্ধ্যায় পর্যটকরা ফিরবেন শান্তিনিকেতন টুরিস্ট লজে।

১৯ তারিখ সক্কালে রওনা হয়ে কঙ্কালিতলা এবং লাভপুরে ফুল্লরা মন্দির দেখে দুপুরের আগেই শান্তিনিকেতন টুরিস্ট লজে ফিরে আসবেন পর্যটকরা। মধ্যাহ্নভোজন সেরে কলকাতার উদ্দেশে রওনা। সন্ধ্যার মধ্যে বাস ফিরবে কলকাতায়।

এসি ভলভো বাসে এই ভ্রমণ হবে। জনপ্রতি খরচ পড়বে ৭,৫০০ টাকা। দ্বিতীয় দিনের মধ্যাহ্নভোজন ছাড়া খাওয়ার সব খরচই প্যাকেজের মধ্যে ধরা রয়েছে। অনলাইনে প্যাকেজটি বুক করার জন্য লগ ইন করুন পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন উন্নয়ন নিগমের ওয়েবসাইটে www.wbtdc.gov.in।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here