শ্রয়ণ সেন

বাঙালির মন সর্বদা উড়ু উড়ু। মন চায় বেরিয়ে পড়তে। কিন্ত সব সময় তা হয়ে ওঠে না। ছবিতেই যাতে বিশ্বভ্রমণে বেরিয়ে পড়তে পারে আমবাঙালি, সেই উদ্দেশ্যেই ভ্রমণবিষয়ক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে ভ্রমণ লেখকদের সংগঠন ট্র্যাভেল রাইটার্স ফোরাম।

এটি ট্র্যাভেল রাইটার্স ফোরামের দ্বাদশ চিত্রপ্রদর্শনী। শুক্রবার বিকেলে, পুরো কলকাতা যখন প্রবল বৃষ্টিতে ভাসছে, তখনই গগনেন্দ্র প্রদর্শশালায় আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয় এই আলোকচিত্র প্রদর্শনীর। প্রদর্শনীর শুভ উদ্বোধন করেন প্রখ্যাত চিত্রগ্রাহক অধ্যাপক বিশ্বতোষ সেনগুপ্ত। বিশ্বতোষবাবু ছাড়াও অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মধ্যপ্রদেশ পর্যটনের কলকাতা শাখার আবাসিক আধিকারিক অভিজিৎ ধর।

উদ্বোধনের ফিতে কাটছেন বিশ্বতোষ সেনগুপ্ত

আপন হতে বাহির হয়ে বাইরে দাঁড়া, বুকের মাঝে বিশ্বলোকের পাবি সাড়া’, রবি ঠাকুরের এই কবিতার উল্লেখ করে বিশ্বতোষ সেনগুপ্ত বলেন, “মানুষের জীবনের অন্যতম উপকরণ ভ্রমণ। ভ্রমণ না থাকলে মানুষ বাঁচতে পারত না। কিন্তু সবাই তো ভ্রমণে বেরোতে পারেন না। কারও সামর্থ্য নেই, কারও সময় নেই। সেই সময় এই ছবির প্রদর্শনীর ফলে মানুষের ভ্রমণের স্বাদ অনেকটাই মিটতে পারে।”

তিন জন বিচারক, অমিতাভ শীল, মানস দাস এবং বিকাশ দাসের বিচারে ১০৩টি সেরা ছবি এই প্রদর্শনীতে ঠাঁই পেয়েছে। বর্ষামাখা উজ্জয়ন্ত প্রাসাদের ছবি যেমন রয়েছে, তেমনই আছে ব্যাংকক চিড়িয়াখানা ডলফিনের লাফের ছবি। লাডাখের ছবির পাশেই রয়েছে পুরীর মাছভাজার ছবি। এই ছবি দেখলে, মনে মনে আপনার বেড়ানো হয়ে যাবেই।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বর্তমান বিশ্বের প্রসঙ্গ নিয়ে আসেন বিচারকমণ্ডলীর অন্যতম সদস্য মানস দাস। তাঁর কথায়, “আজকের বিশ্বে মানুষের মধ্যে যখন এত হানাহানি, বিদ্বেষ, যুদ্ধ-যুদ্ধ গন্ধ, ঠিক সেই সময় ভ্রমণ, মানুষের মধ্যে বন্ধন আরও দৃঢ় করে। এই টালমাটাল সময়েই ট্র্যাভেল রাইটার্স ফোরাম অসাধারণ কাজ কারছে।”

ভ্রমী প্রকাশ করছেন অভিজিৎ ধর

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অভিজিৎ ধরের হাত দিয়ে প্রকাশিত হয় সংগঠনের বার্ষিক মুখপাত্র ‘ভ্রমী’। ভ্রমণ বিষয়ক বিভিন্ন বইও স্থান পেয়েছে এই প্রদর্শনীতে। ভ্রমণের সাহিত্য যেমন রয়েছে, তেমনই রয়েছে ভ্রমণের গাইডও।

শুক্রবার প্রদর্শনী উদ্বোধন হওয়ার পর সাধারণ মানুষের মধ্যে ছবি দেখার উৎসাহ লক্ষ করা যায়। ছবি দেখছিলেন প্রবীণা পর্বতারোহী দীপালি সিংহ। ছবি দেখে তিনি মুগ্ধ, এমনই জানান দীপালিদেবী। ২০০৮ থেকে প্রদর্শনীতে ছবি প্রদর্শিত হচ্ছে সংগঠনের সদস্যা তথা আহ্বায়ক শ্রেয়সী লাহিড়ীর। এ বার তাঁর দুটো ছবি স্থান পেয়েছে এই প্রদর্শনীতে। শ্রেয়সীর কথায়, “আগের বছরের তুলনায় এ বার ছবির মান আরও অনেক উন্নত হয়েছে।” সবাইকে এই প্রদর্শনীতে আসার আহ্বান জানান শ্রেয়সী।

ছবিতে মুগ্ধ দীপালি সিংহ

রবিবার ৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই প্রদর্শনী চলবে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন