জলদাপাড়া টুরিস্ট লজ

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন উন্নয়ন নিগমের আওতায় থাকা রাজ্যের ৩২ টি টুরিস্ট লজ- সংস্কার করছে রাজ্য সরকার। মূলত বেসরকারি লজগুলিকে টেক্কা দিতে একেবারে অত্যাধুনিক ভাবে এই সরকারি লজ ও গেস্টহাউসগুলিকে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য পর্যটন দপ্তর। ইতিমধ্যেই বিজ্ঞপ্তিও জারি হয়েছে। আর এ বার শীতের মরশুমের আগেই দিঘা-মন্দারমণি থেকে শান্তিনিকেতন, বকখালি থেকে জলদাপাড়া সহ সব ক’টি টুরিস্ট স্পটকে চিহ্নিত করে সেগুলিকে সাজিয়ে তোলা হচ্ছে। পর্যটন দফতর সূত্রে এই খবর জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: শীতের ভ্রমণ/৩ : হেরিটেজ গুজরাত

জানা গিয়েছে, রাজ্যের সেচ দফতর, বন দফতর, যুব কল্যাণ ও জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতরের অধীনে যে সব গেস্ট হাউস আছে সেগুলিরও সংস্কার করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। আর সংস্কার হওয়া লজ বা গেস্ট হাউস থেকে রাজ্য সরকারের ভালো মুনাফা হবে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

রাজ্য পর্যটন নিগম সূত্রে জানা গিয়েছে, নতুন অত্যাধুনিক ঝাঁ চকচকে করে টুরিস্ট লজগুলি সাজাতে একটি সমীক্ষা করা হয়েছে। সেই সমীক্ষা অনুযায়ী যে লজ বা গেস্ট হাউসগুলির চাহিদা সব থেকে বেশি সেইগুলি আগে সংস্কার করা হবে।

রাজ্য পর্যটন উন্নয়ন নিগমের ম্যানেজিং চেয়ারম্যান তন্ময় চক্রবর্তী বলেন, “রাজ্য সরকারের ৩২টি টুরিস্ট লজকে ঢেলে সাজা হচ্ছে। ইতিমধ্যে শহরের একটি নামী সংস্থাকে দিয়ে পর্যটন দফতরের কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। রান্না করা থেকে গেস্টহাউসের অতিথিদের সঙ্গে কী ভাবে আচরণ করতে হবে, সব কিছুর জন্যই এই প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। মূলত তাদের স্মার্ট করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here