বিশেষ প্রতিনিধি: বাজার আবার সেই অস্থির সময়ের জালে আটকে পড়তে চলেছে বলেই ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। গত দিন তিন-চারটি ট্রেডিং ডে-র বিশ্লেষণ করে তেমনটাই ইঙ্গিত মিলেছে বলে তাঁরা দাবি করছেন। যদিও খোলা চোখে তেমন একটা প্রবল লক্ষণ ধরা পড়ছে না। 

গত  সপ্তাহের শেষ কেনাবেচার দিনে বাজার যথেষ্ট চাঙ্গা ছিল। কিন্তু চলতি সপ্তাহে তার লক্ষণ খুব একটা ভালো ঠেকছে না। গত বুধবার শেয়ার বাজারের দুই সূচক সেনসেক্স এবং নিফটি নিজেকে সেই অস্থিরতা থেকে মুক্ত করার আপ্রাণ চালিয়েছে। কিন্তু শেষমেশ সেনসেক্স ১৬ পয়েন্ট উপরে বন্ধ হলেও নিফটি ২১ পয়েন্ট নীচেই দিন শেষ করেছে। তার আগে অবশ্য ৫০ পয়েন্টের নীচেও ঘুরে আসতে দেখা গিয়েছে তাকে। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা পরিষ্কার করেননি, ঠিক কী কারণে বা কত দিন চলতে পারে এই অস্থিরতা?

একাংশের দাবি, আগামী ১২ মে কর্নাটক বিধানসভা নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে আছে এ দেশের শেয়ার বাজারও। ফলাফল যাই হোক, সেন্টিমেন্টের প্রয়োগ তো আর থেমে থাকবে না। হাতে থাকা সপ্তাহ দুয়েক সময়ে এই সংবেদনশীলতাকেই কাজে লাগিয়ে বাজার উঠবে-নামবে। যদিও এই যুক্তি মোটেই সর্বজনগ্রাহ্য় নয়। (বিস্তারিত পড়ুন আগামী শুক্রবার)

আরও পড়ুন: সবাই তো তাকিয়ে আছে আপনার মানি ব্যাগের দিকে, আর আপনি?

বৃহস্পতিবার নিফটির রেজিট্য়ান্স হতে পারে ১০,৭৬০ এবং ১০,৭৮৫ অন্য দিকে সাপোর্ট বাঁধা পড়তে পারে ১০,৬৮০ এবং ১০,৬৫০-এর মধ্যে। এই প্রতিরোধ এবং সমর্থন অঞ্চল থেকেই স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে বাজারে খুব একটা হেলদোল বৃহস্পতিবার লক্ষ্য করা যাবে বলে আশা করা যায় না। সর্বনিম্ন রেজিট্যান্স এবং সর্বোচ্চ সাপোর্টের মধ্যে ব্যবধান দাঁড়াচ্ছে মাত্র ৯০ পয়েন্ট। তবে হ্যাঁ, আচমকা কোনো সংবেদনশীল ঘটনা ঘটে গেলেও এই অঙ্ক যে নিমেষে বদলে যেতে পারে, তা নতুন করে বলার নয়।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন