সুমন সাহা

সুন্দরবন বেড়াতে গিয়ে শীতের শুরুতেই দিল খুশ পর্যটকদের। পিরখালির জঙ্গলে দেখা দিলেন রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার। সেই বিরল দৃশ্য ক্যামেরার লেন্সে বন্দি করলেন তাঁরা।

কথায় বলে বাঘের দেখা মেলা ভার। ভাগ্যে না থাকলে বাঘের দর্শন হয় না। এটা অবশ্য পর্যটকদের কথা। যারা বাঘ নিয়ে বাস করেন সেই সুন্দরবনবাসীরা কিন্তু উলটো কথা বলেন। তাঁদের বক্তব্য হল, দুর্ভাগ্য থাকলে বাঘের মুখোমুখি হতে হয়।

ভাগ্য-দুর্ভাগ্যের বিতর্ক থাক। মোদ্দা কথা হল, সুন্দরবন বেড়াতে গিয়ে ক্যানিং মহকুমার পিরখালির জঙ্গলে বাঘবাবাজির দেখা পেয়েছেন পর্যটকরা। এই ঘটনা ২০ নভেম্বরের। বাঘবাবাজি বিদ্যাধরী নদী সাঁতরে চড়ে উঠে লাগোয়া জঙ্গলে ঢুকে যায়।

বাঘ বিশেষজ্ঞরা জানান, আগস্ট-সেপ্টেম্বর মাস বাঘের মিলন মাস এবং নভেম্বর-ডিসেম্বর সন্তান প্রসবের মাস। এই সময় মা- বাঘেরা সন্তান প্রসবের জন্য নিরাপদ স্থান খুঁজে নেয়। কারণ, বাবা-বাঘ বাচ্চাকে দেখতে পেলে মেরে ফেলে। অনেক সময় বাঘিনী সন্তান প্রসবের জন্য লোকালয়েও ঢুকে পড়ে। পিরখালির জঙ্গলের উলটো দিকেই লস্করপুর গ্রাম। গত কয়েক দিন ধরেই নাকি এই বাঘটিকে বিদ্যাধরীর চরে দেখা যাচ্ছে। পর্যটকরা লঞ্চে করে ওই জঙ্গলের মধ্য দিয়ে যাওয়ার সময় দেখতে পাচ্ছেন দক্ষিণ রায়কে এবং সঙ্গে সঙ্গে ক্যামেরাবন্দি করছেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, এটি বাঘিনী হতে পারে। হয়তো সন্তান প্রসবের জন্য নিরাপদ আশ্রয় খুঁজছে।

বন দফতরের সূত্রে বলা হয়েছে, তারা পর্যটকদের মারফত পিরখালির জঙ্গলে বাঘ বেরোনোর খবর পেয়েছে। বনকর্মীরা সেখানে গিয়েছেন। গোটা ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here