বিশ্বকাপ ২০২২: ফ্রান্সকে হারালেও শেষ ১৬-র দরজা খুলল না টিউনিসিয়ার, পৌঁছে গেল অস্ট্রেলিয়া

0
গোল করার পরে ওয়াহবি খাজরি। কিন্তু শেষ ১৬-য় যাওয়া হল না টিউনিসিয়ার। ছবি সৌজন্যে Twitter/tunisie football

টিউনিশিয়া ১ (ওয়াহবি খাজরি) ফ্রান্স ০

অস্ট্রেলিয়া ১ (ম্যাথু লেকি) ডেনমার্ক ০

কাতার: নিতান্তই দুর্ভাগ্য টিউনিসিয়ার। বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সকে হারিয়েও এ বারের বিশ্বকাপে শেষ ১৬-য় যেতে পারল না তারা। তাদের শেষ ১৬-য় যাওয়ার পথে বাধা হয়ে দাঁড়াল অস্ট্রেলিয়া। ডেনমার্ককে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়া গেল শেষ ১৬-য়। এই খেলায় অস্ট্রেলিয়ার জেতারই দরকার ছিল। কারণ তারা ড্র করলেও গোল-পার্থক্যের হিসাবে শেষ ১৬-য় চলে যেত টিউনিসিয়া।

বুধবার এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে আয়োজিত ম্যাচে টিউনিসিয়া ১-০ গোলে হারায় ফ্রান্সকে। আর আল জানাউব স্টেডিয়ামে আয়োজিত ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া ১-০ গোলে হারায় ডেনমার্ককে।

গ্রুপ ডি থেকে ফ্রান্স আগেই শেষ ১৬-য় চলে গিয়েছিল। তাই টিউনিসিয়ার কাছে এ দিনের পরাজয়ে তাদের কোনো ক্ষতি হয়নি। ৩ ম্যাচ থেকে তাদের সংগ্রহ ৬ পয়েন্ট। ডেনমার্ককে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়াও ৬ পয়েন্ট সংগ্রহ করে শেষ ১৬-য় চলে গেল। কিন্তু গোল-পার্থক্যের হিসাবে ফ্রান্স হল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। এ বারের মতো বিদায় নিল টিউনিসিয়া ও ডেনমার্ক। তাদের ঝুলিতে যথাক্রমে ৪ ও ১ পয়েন্ট।

প্রায় নতুন টিম ফ্রান্সের

শেষ ১৬-য় আগেই পৌঁছে গিয়েছে ফ্রান্স। তাই বুধবার তারা যে দল নামায় তাতে ৯টা পরিবর্তন করা হয়। বলা বাহুল্য, খেলোয়াড়দের যোগ্যতা মাপার জন্য এই পরীক্ষানিরীক্ষার প্রয়োজন রয়েছে। কিন্তু এই পরীক্ষানিরীক্ষারই কি খেসারত দিল ফ্রান্স? এই প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে ফুটবল বিশেষজ্ঞদের মনে।

ম্যাচের শুরু থেকেই ফ্রান্সের সীমানায় হানা দিতে শুরু করে টিউনিসিয়া। মিনিট দশেকের মধ্যেই ইনডিরেক্ট ফ্রি-কিক থেকে ফ্রান্সের গোলে বল ঢুকিয়ে দেয় টিউনিসিয়া। কিন্তু লাইন্সম্যানের ফ্ল্যাগ জানায় অফসাইড। মিনিট পাঁচেক পরে ওয়াহবি খাজরি পড়ে যান ফ্রান্সের পেনাল্টি বক্সে। কিন্তু রেফারি পেনাল্টি দেননি। টিউনিসিয়ার আক্রমণ চলতে থাকে। ম্যাচের ৩৯ মিনিটে খাজরির শট দুর্দান্ত ভাবে বাঁচিয়ে দেন ফ্রান্সের গোলকিপার স্টিভ মানদান্দা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে ফ্রান্স কিছুটা গা ঝাড়া দিয়ে ওঠে। তারা টিউনিসিয়ার সীমানায় আক্রমণ হানার চেষ্টা করে। কিন্তু তারই ফাঁকে ম্যাচের ৫৮ মিনিটে গোল করে বসে টিউনিসিয়া। দলের অধিনায়ক খাজরি গোল করেন।

অতিরিক্ত সময়ের একেবারে শেষ লগ্নে ফ্রান্সের আন্তয়েন গ্রিজমান টিউনিসিয়ার গোলে বল ঢুকিয়ে দেন। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নকে হারানোর আনন্দ নিমেষে দূর হয়ে টিউনিসিয়া শিবিরে নেমে আসে হতাশা। গ্যালারিতে সমর্থকরা কান্নাকাটি শুরু করে দেন। তাঁদের তখনও আশা ছিল অস্ট্রেলিয়া-ডেনমার্ক ম্যাচ যদি ড্রও হয়, তা হলেও তারা শেষ ১৬-য় যেতে পারে। শেষ পর্যন্ত ভার (VAR, ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি) পরীক্ষায় দেখা যায়, গ্রিজমানের গোল সিদ্ধ নয়। টিউনিসিয়াই জিতেছে। তবে ততক্ষণে খবর চলে এসেছে, অস্ট্রেলিয়াও জিতেছে। সুতরাং বিশ্ব চ্যাম্পিয়নকে হারিয়েও শেষ ১৬-য় যাওয়া হল না টিউনিসিয়ার। আবার হতাশা নেমে আসে তাদের শিবিরে।

গোল করার পরে ম্যাথু লেকি। ছবি সৌজন্যে Twitter/Socceroos   

ফ্রান্সের সাথি হল অস্ট্রেলিয়া

ম্যাচের শুরু থেকে কিন্তু আধিপত্য ছিল ডেনমার্কের। প্রথম ১৫ মিনিটের তিন বার আক্রমণের সুযোগ পায় তারা। এর মধ্যে এক বার তারা অস্ট্রেলিয়ার গোল লক্ষ্য করে শটও নেয়। বল দখলদারির হিসাবেও এগিয়ে থাকে ডেনমার্ক। ম্যাচের ২১ মিনিটে ডেনমার্কের জোয়াকিম মেহলে অস্ট্রেলিয়ার বক্সে ঢুকে পড়েন। এ ক্ষেত্রে দলকে বাঁচিয়ে দেন অস্ট্রেলিয়ার গোলকিপার ম্যাথু রায়ান। ড্যানিশদের আক্রমণ বাড়তেই থাকে। প্রথমার্ধ শেষ হয় গোলশূন্য ভাবে।

দ্বিতীয়ার্ধে ৬০ মিনিটের মাথায় গোল করে বসেন অস্ট্রেলিয়ার ম্যাথু লেকি। একক দক্ষতায় গোল করেন তিনি। ডেনমার্কের গোলকিপার কাসপার শ্মেইচেলের কিছু করার ছিল না।

ম্যাচের ৭৫ মিনিটে সমতা ফেরানোর সুযোগ পেয়েছিল ডেনমার্ক। অস্ট্রেলিয়ার পেনাল্টি বক্সের ঠিক গা ঘেঁষে যে শট তিনি নেন তা আটকে দেওয়া হয়। গোল শোধের আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যেতে থাকে ডেনমার্ক। কিন্তু সতর্ক থাকে অস্ট্রেলিয়া। শেষ পর্যন্ত ম্যাচ ১-০ গোলে জিতে নেয় অস্ট্রেলিয়া।  

আরও পড়ুন       

বিশ্বকাপ ২০২২: শেষ ১৬-য় নেদারল্যান্ডস বনাম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইংল্যান্ড বনাম সেনেগাল       

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন