costa2final

ইরান – ০                               স্পেন – ১

ওয়েবডেস্ক: পর্তুগালের সঙ্গে যে ছন্দে দেখা গিয়েছিল স্পেনকে, বুধবার দ্বিতীয় ম্যাচে তা ছিল অনেকটাই অনুপস্থিত। জয়ের তাগিদ নিয়ে প্রথম থেকে শুরু করলেও, ইরান ডিফেন্সের সামানে বারবার আটকে পড়ছিলেন ইনিয়েস্তা, র‍্যামোসরা। প্রথমার্ধে ইরানের বিরুদ্ধে গোলমুখ খুলতে গিয়ে রীতিমতো হা-হুতাশ অবস্থা ২০১০ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। এশিয়া রাঙ্কিং অনুযায়ী এই মুহূর্তে সবার শীর্ষে ইরান। নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার রাখতে সাধ্যমতো চেষ্টা চালিয়ে গেল তারা।

প্রথমার্ধ বলতে গেলে স্পেনের পাসিং ফুটবল বনাম ইরান ডিফেন্স। যার ফলে বাড়বার অ্যাটাকিং থার্ডে গিয়ে আটকে যাচ্ছিলেন ইস্কো, বুস্কেতরা। সেটপিস থেকে কয়েকবার বিপদ বাড়িয়ে ছিলেন তারা কিন্তু কার্যকর হয়নি। তবে তিরিশ মিনিটের মাথায় হাফ চান্স পেয়েছিলেন দাভিদ সিলভা কিন্তু সেই ইরান ডিফেন্সের সামনে আটকে যান। বিরতিতে যাওয়ার আগে ফের সুযোগ পেয়েছিলেন। এবারও ব্যর্থ হন ম্যাঞ্চেস্টার সিটির এই তারকা।

দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য খেলায় কিছুটা জান ফিরে এলো। গোলের জন্য প্রথম থেকেই আক্রমণ বাড়াতে থাকে লা-রোজারা। বুস্কেটের শটে বিপদ হওয়া থেকে বাঁচান ইরানের গোলকিপার। তবে আট মিনিটের মাথায় নিজেদের সব থেকে সহজ সুযোগ হাতছাড়া করে ইরান। করিমের শট একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। তবে এর মিনিট কয়েকের মধ্যে শেষমেশ নিজেদের খাতা খোলে স্পেন। ইনিয়েস্তার দেওয়া বল হাফ চান্সে ঘুরে গোলে ঢোকাতে ভুল করেননি প্রধান স্ট্রাইকার কোস্তা। টুর্নামেন্টে এটি তাঁর তৃতীয় গোল। গোল হজম করার পরই ডিফেন্স ছেড়ে আক্রমণে মনঃসংযোগ বাড়ায় ইরান। মেহদির হেডার একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। কুড়ি মিনিটের মধ্যে ইরানের হয়ে সমতা ফিরিয়ে এনেছিলেন আজাতোল্লাহি। কিন্তু ভিআরএস পদ্ধতির সাহায্যয নিয়ে অফসাইদের জন্য তা বাতিল করে দেন রেফারি। শেষ দিকে সমতা ফেরানোর জন্য আক্রমণ বাড়ালেও, সুযোগ হাতছাড়া করেন দলের তারকা খেলোয়াড় মেহদি তারিনি। এই ম্যাচের পর দুই ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ বি-র শীর্ষে পর্তুগাল ও স্পেন। ৩ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে ইরান।

ফলে ইরানকে হারিয়ে এই মুহূর্তে গ্রুপে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলো স্প্যানিশ আর্মাডা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here