বিশ্বকাপ ২০২২: পিছিয়ে থেকে স্পেনের সঙ্গে ড্র করে আশা জিইয়ে রাখল জার্মানি

0
সমানে সমানে। ছবি সৌজন্যে Hindustan Times/AP

স্পেন ১ (মোরাতা) জার্মানি ১ (ফুয়েলক্রুগ)

কাতার: প্রথম ম্যাচে জাপানের কাছে হেরে গিয়ে সমর্থকদের চরম হতাশ করেছিল জার্মানি। দ্বিতীয় ম্যাচ শক্তিশালী স্পেনের সঙ্গে, যারা প্রথম ম্যাচে কোস্তারিকাকে দুরমুশ করেছিল। সেই স্পেন যখন দ্বিতীয়ার্ধের গোলে এগিয়ে গেল তখন আশা ছেড়ে দিয়েছিলেন জার্মানির সমর্থকরা। তাঁরা ধরেই নিয়েছিলেন এ বার গ্রুপ স্টেজ থেকেই বিদায় নিতে হবে জার্মানিকে। কিন্তু ম্যাচের প্রায় শেষ লগ্নে জার্মানি যখন সমতা ফেরাল তাঁরা আবার আশায় বুক বেঁধেছেন। হয়তো এখান থেকেই ঘুরে দাঁড়াল চার বারের চ্যাম্পিয়ন জার্মানি।

২টি গোলই দ্বিতীয়ার্ধে

রবিবার আল বায়াত স্টেডিয়ামে আয়োজিত গ্রুপ ই-র স্পেন বনাম জার্মানির ম্যাচ ১-১ গোলে অমীমাংসিত থাকে। শুরু থেকেই স্পেনকে অনেক হালকা মুডে লাগছিল। জেতার জন্য মরিয়া জার্মানির আক্রমণকে তারা সহজেই নষ্ট করে দিচ্ছিল। ম্যাচের ৭ মিনিটেই তারা এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল। কিন্তু দুর্দান্ত সেভ করেন জার্মানির গোলকিপার মানুয়েল নয়ার। দানি ওলমোর শট পাঞ্চ করে ক্রসবারের উপর দিয়ে পাঠিয়ে দেন নয়ার।

৩৯ মিনিটে জার্মানির আন্তোনিও রুডিগার হেড করে স্পেনের জালে বল জড়িয়ে দেন। গোল হয়েছে ভেবে হানসে ফ্লিকের ছেলেরা আনন্দে এক অপরকে জড়িয়ে ধরে। গ্যালারিতে তখন জার্মানির সমর্থকদের উল্লাস। কিন্তু ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির পরীক্ষায় (VAR Check) উত্তীর্ণ হতে পারেনি সেই গোল। অফসাইড হয়ে যায়।

দ্বিতীয়ার্ধের ৫৭ মিনিটে আরও একবার বিপদে পড়ে স্পেন। দলকে বাঁচিয়ে দেন গোলকিপার সিমন জার্মানির কিমিচের শট ধরে। ম্যাচের ৬২ মিনিটে এগিয়ে যায় স্পেন। খোরদি আলবার ক্রস থেকে গোল করেন আলবারো মোরাতা। গ্যালারিতে তখন মিশ্র প্রতিক্রিয়া। এক দিকে উল্লাস, আর-এক দিকে মানসিক ভাবে ভেঙে পড়া।

কিন্তু না, ফিরে এল জার্মানি। ম্যাচের নির্ধারিত সময়ের ৭ মিনিট আগে জার্মানির জামাল মুসিয়ালা স্পেনের রক্ষণের সঙ্গে যুদ্ধ করে ঢুকে পড়েন তাদের পেনাল্টি বক্সে। মুসিয়ালার পাস কাজে লাগিয়ে ফুয়েলক্রুগ স্পেনের গোলে বল পাঠিয়ে দেন। আশায় বুক বাঁধতে শুরু করেন জার্মানির সমর্থকরা।

তার পর দুই দলই সমানে সমানে লড়াই চালায়। কিন্তু আর কোনো গোল হয়নি।          

কী হলে জার্মানি যেতে পারে শেষ ১৬-য়

প্রতিটি দলের ২টি করে ম্যাচের পর গ্রুপ শীর্ষে রয়েছে স্পেন। তাদের সংগ্রহ ৪ পয়েন্ট। জাপান ও কোস্তারিকা দু’টি দলই ৩ পয়েন্ট করে সংগ্রহ করেছে। আর জার্মানির সংগ্রহ ১ পয়েন্ট।

গ্রুপ ই-র চূড়ান্ত দু’টি ম্যাচ বৃহস্পতিবার। সে দিন জার্মানির খেলা কোস্তারিকার সঙ্গে আর স্পেন খেলবে জাপানের বিরুদ্ধে। শেষ যেতে হলে জার্মানিকে জিততে তো হবেই, উপরন্তু স্পেনকেও জিততে হবে। তা হলে স্পেন ও জার্মানি শেষ ১৬-য় চলে যাবে।

কিন্তু স্পেন বনাম জাপান ম্যাচ যদি ড্র হয় তা হলে শেষ ১৬-য় স্পেনের সঙ্গী কে হবে জার্মানি না জাপান, তার বিচার হবে গোল-পার্থক্যের হিসাবে। আর স্পেন যদি হেরে যায় তা হলে শেষ ১৬-য় জাপানের সঙ্গী কে হবে জার্মানি না স্পেন, তার বিচার হবে গোল-পার্থক্যের হিসাবে। সে ক্ষেত্রে নিঃসন্দেহে অনেক এগিয়ে থাকবে স্পেন কারণ তারা কোস্তারিকাকে তারা ৭টি গোল দিয়েছে।

আরও পড়ুন      

বিশ্বকাপ ২০২২: বেলজিয়ামকে চমক মরক্কোর, জার্মানি-জয়ী জাপানকে হারাল কোস্তারিকা, ক্রোয়েশিয়ার কাছে হার কানাডার

বিশ্বকাপ ২০২২: মেক্সিকোকে হারিয়ে শেষ ১৬-য় যাওয়ার আশা জিইয়ে রাখল আর্জেন্তিনা  

বিশ্বকাপ ২০২২: মেক্সিকোকে হারাল আর্জেন্তিনা, কী ভাবে তারা শেষ ১৬-য় যেতে পারে, দেখে নিন

 

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন