Arunava Gupta
অরুণাভ গুপ্ত

মাত্র ১৩ বছর বয়সে বৈদ্যুতিক করাত কলে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে চিরদিনের মতো হারিয়ে গিয়েছিল একটা হাত। কিন্তু কে জানত সেই এক-হাতি কিশোরই এক দিন চিরস্থায়ী আসন পাকা করে নেবেন ফুটবলপ্রেমীদের স্মৃতির তালিকায়।

হেক্টর কাস্ত্রো। উরুগুয়েতে যিনি পরিচিত ওয়ান আর্মড গড অব উরুগুয়ে নামে। ১৯৩০, প্রথম বিশ্বকাপের প্ৰথম ম্যাচে প্রথম গোলটি করেছিলেন ফ্রান্সের লুই লরেন্ট। আর সমাপ্তি গোলের অধিকারী এই কাস্ত্রো। উরুগুয়ে-আর্জেন্টিনা ফাইনালে একে বারে শেষ লগ্নে গোল করে লরেন্টের গোলটির সঙ্গেই এক যোগসূত্র রচনা করেছিলেন কাস্ত্রো।

castro1

উরুগুয়ের ফুটবলের শহর মন্টিভিডিওতে জন্ম ২৯ নভেম্বর, ১৯০৪ সালে। বছর ১৩-র কিশোর কাস্ত্রো ডানহাতের কনুইয়ের নীচের অংশ হারালেও ফুটবলে পড়েনি কোনো প্রভাব। পুরো দমে ফুটবল খেলে যাওয়ার পুরস্কার ২৬ বছর বয়সে প্রথম বিশ্বকাপের আসরে সুযোগ পাওয়া। সেন্টার ফরোয়ার্ডে খেলতেন তিনি। কিন্তু জীবনের কোনো একটা মুহূর্তে নিজের ফুটবল দক্ষতায় শারীরিক অক্ষমতার প্রভাব পড়তে দেননি। গোলের খিদে ছিল তাঁর বরাবরই।

আরও পড়ুন: ফিরে দেখা ফুটবল বিশ্বকাপ: যে রেকর্ড কোনো দিনই ভাঙবে না

৩০ জুলাই, ১৯৩০-এ উরুগুয়ের এস্টাডিও সেন্টিনারি স্টেডিয়ামের ফাইনাল ম্যাচে আর্জেন্টিনার থেকে ৩-২ গোলে এগিয়ে ছিল উরুগুয়ে। একেবারে শেষ লগ্নে পৌঁছে গোলের ব্যবধানকে দ্বিগুণ জায়গায় নিয়ে যান এই এক-হাতি ফুটবল ঈশ্বর।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here