fifa-world-cup-2018

অনেক অঘটনের উপহার দিয়েছে ফুটবল বিশ্বকাপ। এখানে আমরা দেখে নেব, বিশ্বকাপের ইতিহাসে সেরা দশটি অঘটন।

১) ২০১৪ বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল- ব্রাজিলকে ওড়াল জার্মানি 

চার বছর আগের বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনাল। নেইমার, থিয়েগো সিলভা না থাকলেও যথেষ্ট শক্তিশালী দলই ছিল ব্রাজিল। কিন্তু ম্যাচের ফল যে এ রকম হতে পারে, সম্ভবত  জার্মানিরও কোনো অন্ধ ভক্ত এমনটা আশা করেননি। প্রথম আধঘণ্টার মধ্যেই ম্যাচ শেষ। ১১তম মিনিটে গোলের খাতা খুলেছিলেন থমাস মুলার। এর ১৯ মিনিটের মধ্যে আরও চারটে গোল।

ভাগ্যিস, ৫ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর কিছুটা ঢিলেমি দিয়েছিল জার্মানি, না হলে ব্রাজিল যে আর ক’টা গোল খেত, তা ধারণারও বাইরে!

২) ২০১৪ বিশ্বকাপ- হল্যান্ডের কাছে পরাস্ত স্পেন

বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই আগের বারের জয়ীদের নিয়ে ছিনিমিনি খেলল হল্যান্ড। ম্যাচের প্রথম গোলটা স্পেন করলেও বিরতির আগে হল্যান্ডের হয়ে সমতা ফেরান রবিন ফ্যান পার্সি। বিরতির পর ফ্যান পার্সি, আর্জেন রবেনরা মিলে করলেন আরও চারটে গোল।

৩) ২০০২ বিশ্বকাপ- ফ্রান্সকে হারাল সেনেগাল

আগের বিশ্বকাপের জয়ী দল প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেছিল প্রথমবার বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করা সেনেগালের বিরুদ্ধে। ম্যাচে জিনেদিন জিদান খেলেননি। তবুও এরকম ফল যে হতে পারে কারও মাথাতেও ছিল না। পাপা বৌপা ডিউপের গোলে ফ্রান্সকে ১-০ গোলে হারিয়ে দেয় সেনেগাল। গ্রুপ লিগ থেকেই বিদায় নেয় ফ্রান্স। অন্যদিকে কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত উঠে যায় সেনেগাল।

৪) ২০০২ বিশ্বকাপ- দক্ষিণ কোরিয়া হারাল ইতালিকে

দক্ষিণ কোরিয়া আয়োজক দেশ ছিল বলে সমর্থন ছিল তাদের পক্ষেই। কিন্তু তারা যে ইতালির মতো বাঘা দলকে হারিয়ে দেবে, সেটা কল্পনা করা যায়নি। এমনটাই ঘটেছিল ২০০২ বিশ্বকাপের প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে। ইতালিকে ২-১ গোলে হারিয়ে শেষ আটে ওঠে দক্ষিণ কোরিয়া। তবে তাদের রূপকথা সেখানেই শেষ হয়নি। বিশ্বকাপের চতুর্থ দলের শিরোপা ওঠে তাদের মাথায়।

৫) ১৯৯০ বিশ্বকাপ- ক্যামেরন হারিয়ে দিল আর্জেন্তিনাকে

যথারীতি আগের বিশ্বকাপের জয়ী দলের পরের বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচের মুখ থুবড়ে পড়ার গল্প। ন’জনে খেলা ক্যামেরন ১-০ গোলে হারায় আর্জেন্তিনাকে। তবে এই বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠে আর্জেন্তিনা। ফাইনালে অবশ্য পশ্চিম জার্মানির কাছে হেরে যায় তারা।

৬) ১৯৮২ বিশ্বকাপ- আলজেরিয়ার কাছে পরাজিত পশ্চিম জার্মানি

আগের বারের ইউরো কাপ জয়ীদের মুখোমুখি হয়েছিল প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলা আফ্রিকার এই দলটি। কিন্তু স্নায়ুচাপের কোনো লক্ষণই দেখায়নি আলজেরিয়া। হয়তো আফ্রিকার দলটিকে হালকা ভাবেই নিয়েছিল পশ্চিম জার্মানি। তাই আলজেরিয়ার কাছে ২-১ গোলে হেরে যায় তারা। তবে এই বিশ্বকাপের ফাইনালে পৌঁছে গিয়েছিল জার্মানি। সেখানে ৩-১ গোলে ইতালির কাছে হেরে যায় তারা।

৭) ১৯৭৮ বিশ্বকাপ- স্কটল্যান্ডের কাছে হারল হল্যান্ড

হল্যান্ডের কার্যত স্বর্ণযুগ চলছিল বলা যায়। মনে করা হচ্ছিল স্কটল্যান্ডকে হাতের কাছে পেয়ে ছিনিমিনি খেলবে তারা। কিন্তু সেটা তো হলই না। উলটে হল্যান্ডে ডিফেন্স ভেদ করে তিন গোল করে স্কটল্যান্ড। জবাবে মাত্র দু’টি গোল করে হল্যান্ড।

৮) ১৯৬৬ বিশ্বকাপ- ইতালিকে হারাল উত্তর কোরিয়া

এই বিশ্বকাপে একটা পয়েন্টও পাওয়ার আশা করেনি উত্তর কোরিয়া। তবুও তারা অঘটন ঘটাল। ইতালিকে হারিয়ে দিল ১-০ গোলে। পরের ম্যাচেও পর্তুগালের বিরুদ্ধে ৩-০ গোলে এগিয়ে গিয়েছিল উত্তর কোরিয়া। তবে তার পর ইউসেবিওর দাপটে ৫-৩-এ হেরে যায় তারা।

৯) ১৯৫৪ বিশ্বকাপ ফাইনাল- পশ্চিম জার্মানির কাছে হারল হাঙ্গেরি

অনেকের মনে হবে এটা আর কী এমন অঘটন! এটা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু যখন হাঙ্গেরির ওই বিশ্বকাপের ফর্মের ব্যাপারে জানা যাবে তখন বোঝা যাবে ওটা অঘটন ছাড়া আর কিছুই নয়। এই ম্যাচের আগে গ্রুপ ম্যাচে পশ্চিম জার্মানিকেও ৮-০ গোলে হারিয়েছিল হাঙ্গেরি। সেই সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়াকে ৯-০ এবং ব্রাজিল এবং উরুগুয়েকে যথাক্রমে ৪-২ গোলে হারিয়েছিল হাঙ্গেরি।

১০) ১৯৫০ বিশ্বকাপ- হারল ইংল্যান্ড, জিতল যুক্তরাষ্ট্র

ফুটবলে তখন বিশেষ মনোনিবেশ করত না যুক্তরাষ্ট্র। অন্য দিকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে ২৩ জয়, ৩ ড্র এবং মাত্র চারটে হারের রেকর্ড ছিল ইংল্যান্ডের। সেই ইংল্যান্ডকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ১-০ গোলে হারিয়ে দেওয়া অঘটন বই কী!

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন