fifa
Arunava Gupta
অরুণাভ গুপ্ত

ফুটবলাররা মাঠে খেলেন, আবার ওস্তাদের মার শেষ রাতে। কিন্তু বাইরের রিজার্ভ বেঞ্চের একটা বড়োসড়ো ভূমিকা থাকে। উঁহু বল নয়, মগজাস্ত্র। কোন ন্যায়-অন্যায়ের প্রশ্ন নেই কারণ যুদ্ধে নামলে ছলে-বলে-কৌশলে জেতাই আসল। ১৯৭৪ জার্মানি বিশ্বকাপে এমনই একটা মোক্ষম চালে ফাইনালিস্ট ডাচ টিম জার্মানির কাছে হেরে বসে। জোহান ক্রুয়েফের নেতৃত্বে ডাচরা তখন টোটাল ফুটবল খেলে বিশ্বময় তাক লাগাচ্ছে। কারোর কোনো বিকল্প নেই, সবাই খেলছে সবার জায়গায়। নামেই হয়ে গেল ক্রুয়েফ টার্ন। জার্মানি কমতি নয়, শেষ বাঁশি না বাজা পর্যন্ত লড়নেওয়ালা। তবু জার্মানি চিন্তিত। নিজেদের দেশে নিজেদের সমর্থক, জিততেই হবে নইলে মুখ পুড়বে।

আরও পড়ুন:ফিরে দেখা ফুটবল বিশ্বকাপ: ট্রফি উদ্ধারের সৌজন্যে কুকুর পেল রুপোর মেডেল

ফাইনালের আগে আচমকা এক জার্মান ট্যাবলয়েডে খবর হল, ব্রাজিলের সঙ্গে খেলার আগে ডাচ ফুটবলাররা সম্পূর্ণ বিবস্ত্র অবস্থায় লেট নাইট পার্টিতে ব্যস্ত ছিল। আরও খবর তাঁদের সঙ্গী ছিল দুই জার্মান সুন্দরী। ট্যাবলয়েডের হুঙ্কার ছিল তাদের কাছে প্রমাণ সহ ছবি আছে। যদিও কোনকালেই ওসবের হদিশ মেলেনি। কিন্তু এতেই ক্ষতি যা হওয়ার হয়ে গেল। খবর দাবানলের মতন ছড়াল। খেলা ভুলে তখন ডাচ টিম চিনায় অস্থির প্রিয় আপনজনদের কাছে কেমন করে প্রমাণ করবে, এসব ডাহা মিথ্যে। ক্রুয়েফ-সহ গোটা দল মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। খেলায় ছন্দ হারাল ডাচ, যার ফয়দা তুলল জার্মানি। ফলাফল ২-১, ডাচ হারল। বিশ্বকাপের এই মজা ভালো-মন্দের রাংতায় মোড়া হরকিসিমের খবর। আরে বাবা পাতে ছ্যাঁচরারও কদর আছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here