বিশ্বকাপ ২০২২: ইতিহাস সৃষ্টি করে মরক্কো কোয়ার্টার ফাইনালে, পেনাল্টি শুটআউটে পরাস্ত স্পেন

0
সমর্থকদের উল্লাস। ছবি twitter থেকে নেওয়া।

মরক্কো ০ (৩) স্পেন ০ (০)

কাতার: ইতিহাস সৃষ্টি করল আফ্রিকার দেশ মরক্কো। ২০১০-এর বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন স্পেনকে টাইব্রেকারে হারিয়ে এ বারের বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল তারা। এই প্রথম মরক্কো বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল। কোয়ার্টার ফাইনালে তারা পর্তুগাল বনাম সুইৎজারল্যান্ড ম্যাচের বিজয়ীর মুখোমুখি হবে।

মঙ্গলবার এডুকেশন স্টেডিয়ামে আয়োজিত ‘রাউন্ড অফ ১৬’-য় মরক্কো বনাম স্পেন ম্যাচ অতিরিক্ত সময়ের পরেও অমীমাংসিত থাকে। এর পর পেনাল্টি শুটআউটের ব্যবস্থা হয়। তাতেই ৩-০ গোলে জিতে যায় মরক্কো।

আর একজনের কথা বলতেই হয়। তিনি মরক্কোর গোলকিপার ইয়াসিন বউনউ। আগের দিনের ক্রোয়েশিয়ার দোমিনিক লিভাকোভিচ যে পারফরম্যান্স দেখালেন এ দিন বউনউ অনেকটা তাঁরই মতো স্পেনের দু’টি পেনাল্টি শট বাঁচিয়ে দিলেন।

১২০ মিনিট গোলশূন্য  

এ দিন নির্ধারিত ১২০ মিনিটে স্পেন আধিপত্য বজায় রেখে খেললেও গোলের সুযোগকে কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয়। বলের দখলদারিতে স্পেন অনেক এগিয়ে থাকলেও শেষ পর্যন্ত মরক্কোর শক্তিশালী রক্ষণকে খুব একটা ভাঙতে পারেনি। বরং মরক্কোই প্রতি-আক্রমণে স্পেনকে মাঝেমাঝেই প্যাঁচে ফেলছিল। ম্যাচের ২০ মিনিটের মধ্যে মরক্কোর গোলে একটাও শট নিতে পারেনি স্পেন। বরং ১২ মিনিটে মরক্কোর স্পেন-জাত খেলোয়াড় আচরাফ হাকিমির শট স্পেনের ক্রসবারের উপর দিয়ে চলে যায়।

২৫ মিনিটে গাবির শট মরক্কোর ক্রসবারে লাগে। কিন্তু রেফারি তার আগেই অফসাইড ঘোষণা করেন। পরের মিনিটেই স্পেনের মার্কো আসেনসিও-র শট মরক্কোর নেটের সাইডে লাগে। ৩৩ মিনিটে মরক্কোর ইউসেফ এন-নেসিরির শট বাঁচিয়ে দেন স্পেনের গোলকিপার উনাই সিমন। ৪২ মিনিটে মরক্কোর নায়েফ আগুয়ার্দ স্পেনের গোলের উপর দিয়ে হেড করে সুযোগ নষ্ট করেন।

দ্বিতীয়ার্ধের ৫৪ মিনিটে সেট পিস থেকে দুর্দান্ত শট করেন স্পেনের ওলমো। কিন্তু মরক্কোর গোলকিপার ইয়াসিন বউনউ ততোধিক দুর্দান্ত ভাবে সেই শট আটকে দেন। প্রথমার্ধের তুলনায় দ্বিতীয়ার্ধে স্পেনের আক্রমণের ঝাঁঝ অনেক বাড়ে। কিন্তু গোল করতে ব্যর্থ হয় তারা।

ম্যাচের অতিরিক্ত সময়েও ফলের কোনো হেরফের হল না। ১০৪ মিনিটে গোল করার সুযোগ পেয়েছিলেন মরক্কোর ওয়ালিদ চেদিরা। কিন্তু তাঁর শট বাঁচিয়ে দেন সিমন। পেনাল্টি শুটআউটে গেল ম্যাচ।

পেনাল্টি শুটআউটে মরক্কোর ৩ গোল

প্রথমে মরক্কোর হয়ে গোল করেন আবদেল হামিদসাবিরি। কিন্তু স্পেনের পাবলো সারাবিয়ার শট বাঁচিয়ে দেন বউনউ। ফলে মরক্কো ১-০ গোলে এগিয়ে যায়।

দ্বিতীয় পেনাল্টি শট থেকে গোল করেন মরক্কোর হামিক জিইয়েচ। কিন্তু স্পেনের কার্লোস সোলেরের শট পোস্টে লেগে ফিরে যায়। মরক্কোর এগিয়ে যায় ২-০ গোলে।

মরক্কোর বদর বিনাউনের তৃতীয় পেনাল্টি শট আটকে দেন স্পেনের সিমন। আবার স্পেনের সার্গিও বুসকেটসের শটও বাঁচিয়ে দেন বউনউ। মরক্কো এগিয়ে থাকে ২-০ গোলেই।

মরক্কোর চতুর্থ পেনাল্টি শট থেকে জয়সূচক গোলটি করেন স্পেন-জাত খেলোয়াড় আচরাফ হাকিমি। এর পর স্পেনের আর পেনাল্টি শট মারার দরকার হয়নি। মরক্কো জিতে যায় ৩-০ গোলে।

আরও পড়ুন

বিশ্বকাপ ২০২২: দক্ষিণ কোরিয়াকে দুরমুশ করে ব্রাজিল কোয়ার্টার ফাইনালে, ক্রোয়েশিয়ার মুখোমুখি  

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন