divorceronmes

ওয়েবডেস্ক: মেসি,রোনাল্ডো- এই দুই মহারতকাকে নিয়ে সমর্থকদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা নতুন কিছু নয়। প্রতি মুহূর্তেই লড়াই চলছে কে সেরা সেই প্রমাণ করবার।

অবশ্য চলতি রাশিয়া বিশ্বকাপে কিন্তু তাঁরা দুজনেই কিন্তু নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করতে ব্যর্থ। প্রি-কোয়ার্টার থেকেই বিদায় হয়েছে দু’জনের। তাও আবার একই দিনে। তবে তার পরেও তাঁদের নিয়ে এমন এক ঘটনা ঘটেছে, যা রীতিমতো ভাইরাল।

‘আর্গুমেন্টই ই ফ্যাক্তি’ নামক রাশিয়ার একটি দৈনিকে প্রকাশিত একটি খবর রীতিমতো আলোড়ন ফেলে দিয়েছে বিশ্বজুড়ে। রাশিয়ার বাসিন্দা আর্সেন এবং লুডমিলা স্বামী-স্ত্রী। কিন্তু সেই রোনাল্ডো, মেসি তাঁদের জীবনে বয়ে আনল বিপদ। ফলে একে অপরকে ডিভোর্সও দিয়ে দিলেন এই দম্পতি। বিশ্বাস না হলেও, এটাই সত্যি।

ঘটনার সূত্রপাত নাইজেরিয়ার বিরুদ্ধে মেসির দুর্দান্ত গোল। আর্সেন নিজে মেসি ভক্ত অন্যদিকে স্ত্রী রোনাল্ডোর। কিন্তু বিশ্বকাপের শুরুতে মেসির চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে ছিলেন রোনাল্ডো। যার কারণ রোনাল্ডোর প্রথম ম্যাচেই হ্যাটট্রিক। অন্যদিকে আইসল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে মেসির পেনাল্টি মিস। এবং একইসঙ্গে আর্জেন্তিনার ক্রমাগত পয়েন্ট নষ্ট। যা নিয়ে রীতিমতো স্ত্রীর কাছে ট্রল এবং টিটকিরির শিকার হন আর্সেন। তবে নাইজেরিয়ার বিরুদ্ধে মেসির গোল আর্সেনকে স্বস্তি দিলেও, তাঁর স্ত্রী-র টিটকিরি, ঠাট্টা না কমে বরং বেড়ে যায়। ফলে সম্পর্কে অনেকটাই অবনতি হয়।

সেই দৈনিককে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, ” টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার পর থেকেই ও মেসিকে নিয়ে হাসি ঠাট্টা করতে থাকে আইসল্যান্ডের বিরুদ্ধে মেসি পেনাল্টি মিসকে নিয়ে। আমি যা দেখে সহ্য না করতে পেরে রোনাল্ডো,পর্তুগাল এবং বাকি যে সব ক্লাব ও ভালবাসে তাদের নিয়ে মন্তব্য করি। এবং নিজের সব কিছু গুছিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যাই”।

শোনা যাচ্ছে নাইজেরিয়া ম্যাচের পরের দিনই তিনি ডিভোর্স ফাইল করেন সিটি অফ চেলিয়াবিন্সকের কোর্টে।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here