adilramifinal

ওয়েবডেস্ক: ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে দ্বিতীয় বার বিশ্বকাপ ঘরে তুলেছে ফ্রান্স। ফাইনালে পজিশনাল ফুটবলের দিক থেকে কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও, সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে ভুল করেনি ফরাসিরা। ফুটবলে গোলই শেষ কথা। সেই সূত্রকে টার্গেট করে চ্যাম্পিয়নের শিরোপা পেয়েছন এমবাপ্পে, গ্রিৎজমানরা। কিন্তু এটাই আসল চিত্র নয়। ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ের পিছনে রয়েছে একটা রহস্য। যা শুনলে বিশ্বাস হওয়ার নয়। যা কি না ১৯৯৮-য় প্রথম বিশ্বকাপ জয়ের সময়ও ছিল।

সদ্য শেষ হওয়া বিশ্বকাপের শুরু থেকেই যা মেনে এসেছে ফ্রান্স। বিশ্বকাপের প্রতিটি ম্যাচ শুরু হওয়ার আগে দলের তারকা খেলোয়াড়দের সতীর্থ আদিল রামির গোঁফ-স্পর্শ। বিশ্বাস হয়তো হচ্ছে না। কিন্তু এটাই সত্য। প্রথম শুরু করেছিলেন গ্রিৎজমান, তাঁর দেখা-দেখি দলের বাকি সদস্যরাও। এটাই দলের ‘লাকি-চার্ম’ হিসাবে কাজ করেছে। টুর্নামেন্টে একটিও ম্যাচ খেলেননি তা  সত্ত্বেও এই মুহূর্তে হয়তো সব চেয়ে দামি খেলোয়াড় আদিল রামি বললে ভুল হবে না।

এ সম্পর্কে আদিল বলেন, “ফাইনাল ম্যাচের আগে গ্রিৎজমান গোঁফ স্পর্শ করেছিল, এমনকি কোচ নিজেও। দলের ভাগ্যের জন্য। এটি এখন ফ্রান্সের সব থেকে জনপ্রিয় গোঁফ। আমি এটা রেখে দেব।

rami2600

এমন অন্ধবিশ্বাস শুধু রাশিয়া বিশ্বকাপেই করেনি ফ্রান্স। ১৯৯৮-য় প্রথম বিশ্বকাপ জিতেছিল ফ্রান্স। সেই বছরও দলের তারকা খেলোয়াড় লরাঁ ব্লাঁ-ও প্রতি ম্যাচের আগে সতীর্থ ফাবিয়ান বার্থেজের টাকে চুমু খেতেন।

barthez600

অবশ্য কাপ জিতে আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় জানিয়েছেন আদিল রামি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here