বেলজিয়াম-২     ব্রাজিল-১

ওয়েবডেস্ক: ভিভিআইপি বক্সে ফিফা প্রেসিডেন্ট ইনফ্যান্তিনো পাশে সম্ভবত বসেছিলেন বেলজিয়াম ফুটবল ফেডারেশনের কোনো কর্তা। ম্যাচের ৩১ মিনিটে ডি ব্রুইনের অসাধারণ গোলে ফ্রান্সের প্রতিবেশী ও চির প্রতিদ্বন্দ্বী বেলজিয়াম দুই শূন্য গোলে এগিয়ে যেতেই খুশিতে ডগমগ সেই কর্তা ইনফ্যান্তিনোর দিকে হাত বাড়িয়ে দিলেন। ইনফ্যান্তিনোও হেসে হাত নাড়লেন, খানিক কথাও বললেন। সাধারণত এমনটা দেখা যায় না তাঁকে। গ্যালারিতে বসে আবেগ দেখানো তাঁর পদে থেকে উচিতও নয়।

আসলে ব্রাজিলের থেকে নতুন কিই বা পাওয়ার রয়েছে ফুটবল বাণিজ্যের। নেইমার আর কুতিনহো তো মহাতারকা হয়েই রয়েছেন। উইলিয়ানও হয়ে যেতে পারেন ভবিষ্যতে। আর মহাতারকার জন্য যা যা করার, সেটা ফিফা এবং ইনফ্যান্তিনো করেইছেন। গোটা বিশ্বকাপটা মাঠে গড়াগড়ি করার পরও তিনি প্লে অ্যাক্টিং-এর জন্য হলুদ কার্ড দেখলেন না। অথচ তিনি যা করেছেন, তা অন্য কেউ করলে বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালের পথে অন্ততএকটা ম্যাচ সাসপেন্ড হতে হত। এদিন অবশ্য নেইমার আগের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছেন। অজস্র বার পেনাল্টি বক্সে পড়ে গেছেন। একটু পরেই উঠে খেলায় যোগ দিয়েছেন, শটও নিয়েছেন। রেফারি সম্পূর্ণ দর্শক থেকে গেলেন।

যদিও শেষ দিকে নেইমার একটা প্রায় ন্যায্য পেনাল্টির পরিস্থিতি তৈরি করেছিলেন। সেটা হয়তো রাখালের গল্পের শেষটার মতো হয়ে গেছে। আর একটা চমৎকার শট নিয়েছিলেন সংযুক্ত সময়ে। যা কোর্তোস ততোধিক সুন্দর ঢং-এ বাঁচান।

বাকিটা বেলজিয়ামের গল্প। ম্যাচের ১৩ মিনিটে ব্রাজিলের সেমসাইড গোলে তাঁরা যে গতি পেল, তা সারা সময় ধরে রাখল। প্রথমার্ধ জুড়ে মাঠে ফুল ফোটালেন হ্যাজার্ড, ডি ব্রুইন, লুকাকুরা। আর দ্বিতীয়ার্ধে মরিয়া ব্রাজিলের প্রবল আক্রমণাত্মক ফুটবলকে রুখলেন সবাই মিলে। ৭৬ মিনিটে আগুস্তো একটা গোল শোধ করার পরও তারা নড়ে যায়নি। ব্রাজিল আরও সুযোগ কিছু তৈরি করেছিল। কিন্তু ব্রাজিল খেললে সেটুকু তো হবেই। সব ম্যাচই ২০১৪ সালের জার্মা্নি ম্যাচ নয়।

ডি ব্রুইনের গোল

এই প্রথম বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে থাকল না ব্রাজিল, জার্মানি ও আর্জেন্তিনা-এই তিন দলের কেউই। এবং কি আশ্চর্য কাজান এরিনা থেকেই এবার বিদায় নিল তিন দল।

১০ তারিখ, মঙ্গলবার রাত সাড়ে এগারোটায় চির প্রতিদ্বন্দ্বী ফ্রান্সের মুখোমুখি হবেন ডি ব্রুইনরা। সেমি ফাইনালে কোনো লাতিন আমেরিকার দল না থাকার যন্ত্রণা ভুলতে ওই ম্যাচটা কি কাজে লাগবে বাঙালির?

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here