brazil2final

ওয়েবডেস্ক: শুক্রবার গ্রুপ লিগের দ্বিতীয় ম্যাচে কোস্তারিকাকে হারিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের স্বাদ পেয়েছে ব্রাজিল। প্রথম ম্যাচে সুইৎজারল্যান্ডের কাছে আটকে গিয়ে এই ম্যাচ ব্রাজিলের জেতা ছাড়া আর কোনো উপায় ছিল না। এমনিতেই চলতি বিশ্বকাপকে অঘটনের কাপ আখ্যা দিয়েছেন বিশ্বের তাবত ফুটবলবোদ্ধা এবং সমর্থকরা। ছোটো দলগুলির সাধ্যমতো লড়াইকে কিন্তু কুর্নিশ জানাতেই হবে। তবে কোস্তারিকা ম্যাচের পর কিছুটা হলেও প্রাণ ফিরে পেয়েছেন ব্রাজিল সমর্থকরা। অনেক দিন পর ব্রাজিল ফিরল ব্রাজিলে। খেলোয়াড়দের হার-না-মানা জেদের ফসল পেয়েছে ব্রাজিল। তবে এই সাফল্যের পিছনে কিন্তু অবশ্যই যাঁর নাম আগে আসবে তিনি দলের কোচ তিতে।

দায়িত্ব নিয়ে দলের মধ্যে যে তিনি প্রথম থেকেই একটা পরিবর্তন আনতে চলেছেন তা প্রথম দিনই বুঝিয়ে ছিলেন তিতে। জুন ২০১৬-তে সেলেকাওদের দায়িত্ব নেন ৫৭ বছর বয়সি এই কোচ। কোচ হিসাবে তাঁর একটাই মন্ত্র ছিল – দলের সব খেলোয়াড়ই সমান। বড়ো, ছোটো বলে কিছু হয় না। যার ফলে এক অনন্য ঘটনা শুরু করেছিলেন তিনি। যা বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচেও দেখা গেল। যা দলে ভারসাম্য এনে দেওয়ার প্রধান এবং একমাত্র মূল কারণ।

তাঁর কোচিং-এ এখনও পর্যন্ত ২৩টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে ১৬ জন খেলোয়াড় দলের অধিনায়কত্ব সামলেছেন। ষষ্ঠদশ অধিনায়ক হিসাবে কোস্তারিকার বিরুদ্ধে দলকে সামলেছেন থিয়াগো সিলভা। বর্ষীয়ান রোবিনহো থেকে শুরু করে উঠতি তারকা গ্যাব্রিয়াল জেসুস, সবার নামই আছে এই তালিকায়। কারণ তিতে সব সময় মনে করেন এতে সব খেলোয়াড়ের মধ্যে একটা নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষমতা তৈরি হবে।

tite600

দেখে নিন তিতের তত্ত্বাবধানে কারা অধিনায়কত্ব করেছেন:

মিরান্ডা, দানি আলভেস, রেনাটো আগস্তো, ফিলিপ লুইস, ফার্নান্ডিনহো, রোবিনহো, নেইমার, থিয়াগো সিলভা, ফিলিপে কুতিনহো, মার্সেলো, পাউলিনহো, ক্যাসেমিরো, মারকুইনহস, উইলিয়ান, অ্যালিসন, গ্যাব্রিয়েল জেসুস।  

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here