ronaldo2final

পর্তুগাল – ১                       মরক্কো – ০

ওয়েবডেস্ক: খেলল মরক্কো, জিতল পর্তুগাল। ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নদের আজকের ম্যাচ নিয়ে কথা বলতে গেলে শুরুর লাইনটাই যথেষ্ট। সারা ম্যাচে একবারও মনে হয়নি, এটা সেই পর্তুগাল যারা প্রথম ম্যাচে স্পেনের বিরুদ্ধে জান দিয়ে লড়ে গেছে। মরক্কোর জায়গায় অন্য কোনো অভিজ্ঞ দল থাকলে পর্তুগাল এক পয়েন্টও পেত কি না সন্দেহ আছে। কিন্তু মাঠে যখন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো উপস্থিত থাকেন তখন কিছুটা হলেও ভাগ্য সঙ্গে থাকাটাই বাঞ্ছনীয়।

বুধবার প্রথম থেকেই তুমুল গতিতে ম্যাচ শুরু করে আফ্রিকার মরক্কো। খালিদ বিপদ বাড়ালেও তাঁর শট একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট। তবে প্রথম ম্যাচের মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও শুরুতেই রোনাল্ডো-ঝলকের নমুনা পান উপস্থিত দর্শকরা। চার মিনিটের মাথায় কর্নার থেকে আসা বলকে ফলো করে গোল সেই রোনাল্ডোর। টুর্নামেন্টে চতুর্থ গোল। যার ফলে এক অনন্য রেকর্ডের মালিকও হলেন তিনি। ফেরেঙ্ক পুসকাসকে টপকে ইউরোপিয়ান খেলোয়াড়দের মধ্যে আন্তর্জাতিক স্তরে সবচেয়ে বেশি গোল করলেন তিনি। তবে এইটুকুই যা। এর পর থেকে শুধুই মরক্কো। ক্রমাগত চাপ বাড়াচ্ছিলেন অধিনায়ক বেনেটিয়া থেকে শুরু করে হাকিমি, জিয়াচরা। এরই মাঝে প্রথমার্ধের শেষ দিকে সহজ সুযোগ পেয়েছিলেন পর্তুগালের গুয়ারডেজ কিন্তু তা কার্যকর করতে ব্যর্থ তিনি। বিরতিতে যাওয়ার আগে সমতা ফেরাতে পারত মরক্কো, কিন্তু ফাঁকা জালে বল ঢোকাতে ব্যর্থ সেই বেনেতিয়া।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেও একই গল্প। সহজ সুযোগ পেয়েছিলেন মরক্কোর ইয়ুনুস। বিপদ বাড়াতে ব্যর্থ তিনিও। ক্রমাগত চাপের ফলে ম্যাচ চলাকালীন পর্তুগাল সমর্থকদের ব্লাড প্রেসার যে রীতিমতো ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এ দিন মরক্কোর প্রথম এগারোর সব খেলোয়াড়ই নিজেদের সাধ্যমতো নজর কাড়লেন। কিন্তু তাঁদের মধ্যে সব থেকে চর্চিত কিন্তু আম্রবাত। সারা মাঠ জুড়ে খেলেলন তিনি। তবে এ দিনের ম্যাচেও কিন্তু বিতর্ক রয়ে গেল সেই ভিআরএস টেকনোলজি নিয়ে। দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি পেতেই পারত পর্তুগাল। কিন্তু রেফারি সে দিকে কর্ণপাত করেননি। পেনাল্টি পেতে পারত মরক্কোও। সংযুক্ত সময় সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেন সেই বেনেতিয়া। খেলার শেষের দিকে হঠাৎ দেখা যায়, রেফারির কানে শোনার যন্ত্রের ব্যাটারি শেষ হয়ে গেছে। সেটা ঠিক কতক্ষণ আগে থেমে গেছিল, সেটা হয়তো জানা যাবে না। জানা যাবে না, পেনাল্টি বক্সের বিতর্কগুলির সময় তিনি বাইরের নির্দেশ শুনতে পেয়েছিলেন কিনা!

ফলে দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে আপাতত গ্রুপ শীর্ষে পর্তুগাল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here