russiafinal

রাশিয়া – ৩                        মিশর – ১

ওয়েবডেস্ক: অঘটনের বিশ্বকাপে আয়োজক দেশ রাশিয়াকে পাত্তা দেয়নি বেশিরভাগ ফুটবল পণ্ডিতই। কিন্তু যত সময় যাচ্ছে নিজেদের জাত চেনাচ্ছেন রুশরা। একটা ম্যাচই যে যেকোনো দলের মানসিকতা পুরো চাঙ্গা করে দিতে পারে তা মঙ্গলবারের ম্যাচেই প্রমাণিত। দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে মিশরকে এক কথায় জায়গাই দিল না ভ্লাডিমির পুতিনের দেশ। বিশ্বকাপের ইতিহাসে একক রাষ্ট্র হিসাবে প্রথম বার পরপর দু’টি ম্যচে জয় পেল রাশিয়া। যার ফলে বিশ্বকাপের পরবর্তী রাউন্ডে পৌঁছে গেল তারা।

এ দিন শুরু থেকেই একটা জেতার তাগিদ নিয়ে মাঠে নেমছিলেন গোলোভিন, সামাদভরা। যার ফলে প্রথম থেকেই একটা চাপ টের পাচ্ছিলেন, গত ম্যাচে মিশরের সেরা খেলোয়াড় গোলকিপার আল শেনাই। ইগ্নিশিভিচের হেডার দিয়ে ভালোই আক্রমণ শুরু করে রাশিয়া কিন্তু তা বিপদজনক হতে পারেনি। ডিফেন্সের ভুলে সুযোগ পেয়েছিলেন রাশিয়ার মিডফিল্ডের অন্যতম স্তম্ভ গোলোভিন। কিন্তু তাঁর শট বাইরে। তবে প্রতি-আক্রমণে ম্যাচে ফেরার চেষ্টা চালায় মিশরও। বিপদজনক হতে পারতো ট্রেজেগেটের শট। কিন্তু একটুর জন্য তা লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। এই ম্যাচে রাশিয়ার ফুটবল অনেকদিন মনে রাখবেন ফুটবলপ্রেমীরা। যার অন্যতম কারণ মাটিতে বল রেখে পাসিং। যার ফলে ক্রমাগত চাপ বাড়াচ্ছিলেন মার্কো ফার্নান্ডেজরা, কিন্তু গোল মুখ খুলতে ব্যর্থ হন তাঁরা। প্রথমার্ধে তেমন ভাবে চোখে না পড়লেও, বিরতিতে যাওয়ার মিনিট তিনেক আগে সুযোগ পেয়ছিলেন মিশরের প্রানভোমরা সালাহ। কিন্তু তাঁর শট লক্ষ্যভ্রষ্ট।

প্রথমার্ধে যেখানে শেষ, দ্বিতীয়ার্ধে সেখান থেকেই শুরু। যার ফলে চাপে পড়ে মিনিট দু’য়েকের মধ্যে ফাতিহর আত্মঘাতী গোলে ম্যাচে এগিয়ে যায় রাশিয়া। শুরুতেই গোল পেয়ে ব্যবধান বাড়ানোর জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে রাশিয়া। হলটাও তাই। পনেরো মিনিটের মাথায় দ্বিতীয় গোল রাশিয়ার। এবার দলের হয়ে ব্যবধান বাড়ান সারা ম্যাচে দারুন ফুটবল খেলা চরচেসিভ। ব্যস, আর ফিরে তাকাতে হয়নি রুশদের। এর রেশ কাটতে না কাটতে ফের গোল। দলকে তৃতীয় গোলের ব্যবধানে এগিয়ে দেন অভিজ্ঞ খেলোয়াড় জুবা। তিন গোল হজম করলেও, একটা মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছিল মিশর। কিছু ফিরে পাওয়ার। যার ফলপ্রসূ, খেলা শেষ হওয়ার মিনিট কুড়ি আগে বক্সে ফাউল করা হয় মিশরের তারকা সালাহকে। ভিআরএস প্রযুক্তির মাধ্যমে পেনাল্টি দেন রেফারি। এক গোলে ব্যবধান কমালেও শেষমেশ দলকে জয় এনে দিতে ব্যর্থ মহাম্মাদ সালাহ। যার ফলে এবারের মতো বিশ্বকাপের অভিযান প্রায় শেষ হয়ে গেল ফারাওদের।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here