Lionel Messi
Arunava Gupta
অরুণাভ গুপ্ত

ক্রীড়া সাংবাদিক রামা প্যানটারট্টো নাইজেরিয়া-আর্জেন্তিনা ম্যাচের আগে লিওনেল মেসির একান্ত সাক্ষাৎকার নেওয়ার পর ঝোলা থেকে একটা রেড রিবন বের করে বলেন, “ভাই আমি নিতান্ত আজ্ঞাবহ মাত্র। আমার মা অতি অবশ্যই এটা আপনাকে দিতে বলেছেন”। এই রেড রিবন কাণ্ডের নেপথ্যে এমন কী ঘটনা রয়েছে?

কোনো মতে ফাঁড়া কাটিয়ে ১৬ দলে মাথা গোঁজা। এ বার নক-আউট, পারলে থাকো নয়তো কাটো। সত্যি গ্রুপ স্টেজ থেকে উঠতে আর্জেন্তিনা যে হারে খাবি খেয়েছে, তা ভোলার নয়। আইসল্যান্ডের সঙ্গে কোনো রকমে কেঁদেকঁকিয়ে ড্র, অথচ মেসি পেনাল্টি মিস না করলে এমন দমবন্ধ অবস্থায় টিম থাকত না। তার উপর ক্রোয়েশিয়ার কাছে বিতিবিচ্ছিরি হেনস্থার পর মনে হল মেগাস্টার মেসি নিমেষে যেন ফুরিয়ে গেলেন। অসহ্য মানসিক যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাওয়ার রাস্তা তখন একটাই খোলা- নাইজেরিয়া জয়।  হল তাই, মেসি-সহ আর্জেন্তিনা ধড়ে প্রাণ ফিরে পেলেন। কিন্তু কেন এমন কোন জাদুবলে মেসি ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করলেন এবং সেই সঙ্গে গোটা আর্জেন্তিনা দল মরিয়া হয়ে ইয়েস ইউ ক্যান আওয়াজ তুলে মেসিতে জুড়লো?

মেসির কাছে রামার আবেদন, “বিশ্বাস করবেন কি না জানি না, আমার থেকেও আপনাকে বেশি অনেক বেশি স্নেহ করেন আমার মা। তিনি বলেছেন, এটা সঙ্গে রাখবেন, সৌভাগ্যের সূচনা করবে। মায়ের দেওয়া এই রিবন প্লিজ যত্নে রাখবেন। অবশ্য যদি আপনি নেন”।

 Lionel Messi 2

ভাবলেশহীন ভাবে মেসি নিলেন, প্যাকেট খুললেন। নাইজেরিয়ার গাঁট উতরে যাওয়ার পর ফের মেসির কাছে ওই সাংবাদিকের আবির্ভাব। একটাই প্রশ্ন, “মনে পড়ছে আমার মা আপনাকে একটা রেড রিবন দিয়েছিলেন”?

মেসি মিষ্টি হেসে বলেন, “দেখে নিন সযত্নে রেখেছি”। সাংবাদিক দেখেন, মেসির ভেলকি দেখানো বাঁ পায়ে সেই রেড রিবন বাঁধা। আবেগ সামলানো দায়, চিৎকার করে ওঠেন ওই সাংবাদিক-“মা, মাগো মেসি ওই রিবন পরেছেন”।

নিছক কুসংস্কার নয়, মায়ের ইচ্ছাশক্তি কি সত্যিই সে দিন আচমকা ভয়ঙ্কর করে তুলেছিল মেসিকে? উত্তর হয়তো মিলতে পারে পরের ম্যাচে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here