ওয়েবডেস্ক:’উই‌ আর রেড/উই আর হোয়াইট/উই আর ড্যানিশ ডায়নামাইট’। এই শ্লোগান আবার শোনা যাবে এবারের বিশ্বকাপে।

আসন্ন বিশ্বকাপে গ্রুপ বি-র অন্যতম চর্চিত দল ডেনমার্ক। ১৯৮৬ সালে প্রথমবার বিশ্বকাপের মঞ্চে আবির্ভাব হয় ড্যানিশদের। এই নিয়ে পঞ্চমবার বিশ্বকাপের মঞ্চে নিজেদের সেরাটা দিতে প্রস্তুত ডেনমার্ক। বিশ্বকাপে তেমন বড়ো সাফল্য না থাকলেও, বারবার বিভিন্ন অঘটন ঘটিয়েছে তাঁরা। ১৯৯৮ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালেও পৌঁছে ছিল তারা। বিশ্বকাপ বাদ দিলে, আন্তর্জাতিক ফুটবলে সাফল্য খুব একটা খারাপ নয় তাদের। জার্মানিকে হারিয়ে ১৯৯২ সালে ইউরোপ সেরা হয়েছিল তারা। এ ছাড়াও ১৯৯৫ সালে কনফেডারেশন কাপ জয়ী হয় ডেনমার্ক।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপ ২০১৮: ফ্রান্স

আসন্ন বিশ্বকাপে তাদের ওপর নজর রাখতেই হবে। কোচ এগ হারেইডের তত্ত্বাবধানে তারা যে কোনো দলকে চাপে ফেলে দিতে পারে। দলের বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই ইউরোপের সেরা লিগগুলিতে পেশাদারি ফুটবল খেলে। তবে যাদের দিকে বেশি নজর থাকবে তারা হলেন গোলকিপার ক্যাস্পার সুমাইকেল। ইপিএলে লেস্টার সিটির হয়ে ইতিমধ্যেই লিগ জিতেছেন তিনি। বাবা বিশ্বের সর্বকালের অন্যতম সেরা গোলকিপার পিটার সুমাইকেল।

এ ছাড়াও ডিফেন্সের দায়িত্ব থাকবে বর্ষীয়ান খেলোয়াড় এবং অধিনায়ক সিমন কায়েরের ওপর। কিন্তু দলের সবথেকে দামি খেলোয়াড় কিন্তু মাঝমাঠের স্তম্ভ ক্রিস্টিয়ান এরিকসন। ইপিএলে টটেনহ্যাম হটস্পারের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় তিনি। তাঁরই ওপর নির্ভর করবে মাঝমাঠের চাবিকাঠি। স্ট্রাইকিংয়ে যাদের ওপর নজর থাকবে তারা হলেন ক্যাস্পার ডোলবারগ এবং নিকলাই জরগেন্সন।

বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে তাদের সামনে পেরু।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here