Home খবর দেশ সিকিমে আটকে ১২০০ পর্যটক, আবহাওয়া অনুকূল হলে বিমানে উদ্ধারের পরিকল্পনা

সিকিমে আটকে ১২০০ পর্যটক, আবহাওয়া অনুকূল হলে বিমানে উদ্ধারের পরিকল্পনা

উত্তর সিকিমে লাগাতার বৃষ্টির ফলে ধসের জেরে বিপর্যস্ত অবস্থা। ধসের কারণে পর্যটনের জন্য বিখ্যাত লাচুংয়ের সঙ্গে গোটা রাজ্যের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে। রাজ্য সরকারের মতে, এই বিপর্যয়ের ফলে সিকিমে এখনও ১২০০ পর্যটক আটকে রয়েছেন, যার মধ্যে ১৫ জন বিদেশি। তাঁদের মধ্যে ১০ জন বাংলাদেশের, তিন জন নেপালের এবং দু’জন থাইল্যান্ডের বাসিন্দা।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গন ও চুংথাংয়ের সংযোগকারী বেইলি সেতুটি ভেঙে গিয়েছে। ধসের কারণে বহু রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে এবং বহু বাড়ি তছনছ হয়ে গিয়েছে। বিদ্যুতের খুঁটিও ভেঙে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে ত্রাণ নিয়ে পৌঁছানো সমস্যার মুখোমুখি হলেও ধীরে ধীরে সেই সমস্যা মিটছে এবং আটকে পড়া পর্যটকেরা সুস্থ আছেন। আবহাওয়া ভালো হলে তাঁদের বিমানে উদ্ধার করা হবে বলে সিকিমের মুখ্যসচিব কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। সড়কপথেও পর্যটকদের উদ্ধার করার চেষ্টা চলছে।

এই অবস্থায় অরুণাচল প্রদেশে মুখ্যমন্ত্রীর শপথ অনুষ্ঠানে গিয়েছেন সিকিমের মুখ্যমন্ত্রী প্রেমসিংহ তামাং। সেখান থেকে তিনি বলেন, “ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের কাছে সাহায্য পৌঁছে দেওয়ার যথাসম্ভব চেষ্টা করা হচ্ছে। ঘরছাড়াদের নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে সরকার।”

আরও পড়ুন। বিধ্বস্ত সিকিম যাওয়ার ১০ নম্বর জাতীয় সড়ক, পর্যটকরা কোন পথে যাওয়া-আসা করবেন, জানাল প্রশাসন

সিকিমের পরিস্থিতির কারণে ১০ নম্বর জাতীয় সড়ক বিপর্যস্ত হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে পর্যটকদের যাতায়াতের জন্য বিকল্প পথ নির্ধারণ করেছে পশ্চিমবঙ্গের কালিম্পঙের জেলা প্রশাসন। ছোট গাড়িগুলি মানসং-১৭ মাইল-আলগাড়া-লাভা-গরুবাথান হয়ে শিলিগুড়ি যাতায়াত করতে পারবে এবং তুলনামূলক বড় ও ভারী গাড়িগুলি পেডং-আলগাড়া-লাভা-গরুবাথান হয়ে শিলিগুড়ি পৌঁছতে পারবে। পাশাপাশি কালিম্পং থেকে দার্জিলিং যাওয়ার জন্য ২৭ মাইল থেকে তিস্তা ভ্যালি হয়ে যাওয়া যাবে বলে প্রশাসন জানিয়েছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Exit mobile version