Home রাজ্য জলপাইগুড়ি শিয়ালদহমুখী কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসে দুর্ঘটনা, মালগাড়ির ধাক্কায় লাইনচ্যুত দুটি কামরা, মৃত ৯

শিয়ালদহমুখী কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসে দুর্ঘটনা, মালগাড়ির ধাক্কায় লাইনচ্যুত দুটি কামরা, মৃত ৯

শিয়ালদহের দিকে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনার কবলে পড়ল কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস। মালগাড়ির ধাক্কায় ট্রেনটির পিছনের দু’টি কামরা লাইনচ্যুত হয়ে যায়। এই দুর্ঘটনায় বহু যাত্রী আহত হয়েছেন। রেল জানিয়েছে, ন’জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। বর্তমানে উদ্ধারকাজ চলছে ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন থেকে সোমবার সকালে নির্ধারিত সময়েই রওনা দিয়েছিল কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস। দুর্ঘটনাটি ঘটে নীচবাড়ি এবং রাঙাপানি স্টেশনের মাঝে। পিছন দিক থেকে একটি মালগাড়ি এসে ওই ট্রেনে ধাক্কা মারে। সংঘর্ষের তীব্রতায় ট্রেনের পিছনের দুটি কামরা লাইনচ্যুত হয়ে যায় এবং পাশে ছিটকে পড়ে। শিলিগুড়িতে সকাল থেকে মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে, যা উদ্ধারকাজকে ব্যাহত করছে।

দুর্ঘটনার পরপরই উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে এবং জেলাশাসক, পুলিশ সুপার, চিকিৎসক ও অ্যাম্বুল্যান্স ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক্সহ্যান্ডলে উদ্বেগ প্রকাশ করে একটি পোস্টে লিখেছেন, “এই মাত্র দার্জিলিঙের ফাঁসিদেওয়া এলাকায় ট্রেন দুর্ঘটনার খবর পেলাম। বিশদে এখনও জানতে পারিনি। কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসে মালগাড়ি ধাক্কা মেরেছে শুনেছি। জেলাশাসক, এসপি, চিকিৎসক এবং অ্যাম্বুল্যান্স ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উদ্ধারকাজ শুরু হচ্ছে।”

দুর্ঘটনার কারণ এখনও স্পষ্ট নয়। কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস স্টেশনের আগে দাঁড়িয়ে ছিল কি না, ওই লাইনে কেন মালগাড়ি চলে এল, সিগন্যালের কোনও সমস্যা হয়েছিল কি না, এই প্রশ্নগুলির উত্তর এখনও জানা যায়নি। রেল কর্তৃপক্ষ তদন্ত শুরু করেছে এবং দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে।

দুর্ঘটনার ফলে কলকাতা থেকে শিলিগুড়ির সঙ্গে রেল যোগাযোগের প্রধান লাইনটি আপাতত সাময়িক ভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে। দূরপাল্লার ট্রেন চলাচলও সাময়িক ভাবে বন্ধ রয়েছে।

এই দুর্ঘটনা যাত্রীদের মধ্যে গভীর উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে এবং অনেকেই দ্রুত ও সঠিক তথ্যের অপেক্ষায় রয়েছেন। আহত যাত্রীদের দ্রুত চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হচ্ছে এবং পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Exit mobile version