Homeখবরদেশসিএএ নিয়ে বিরোধীদের কড়া জবাব অমিত শাহের, নিশানায় মমতাও

সিএএ নিয়ে বিরোধীদের কড়া জবাব অমিত শাহের, নিশানায় মমতাও

প্রকাশিত

নয়াদিল্লি: নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (CAA) সংক্রান্ত কেন্দ্রের বিজ্ঞপ্তির পর থেকে সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক অবস্থান বজায় রেখেছে বিরোধীরা। অন্য দিকে, সরকার স্পষ্ট ভাবে বলছে, যে যাই করুক না কেন, এই আইন প্রত্যাহার করা হবে না।

এরই মধ্যে আজ, বৃহস্পতিবার একটি সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সিএএ-তে মুসলমানদের অন্তর্ভুক্ত না করার কারণ জানিয়েছেন। তবে, তিনি বলেছেন, তাঁরা যদি এখনও ভারতীয় নাগরিকত্ব চান, তা হলে সাংবিধানিক উপায়ে এর জন্য আবেদন করতে পারেন। সিএএ-তে কেন মুসলিমদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি, এমন প্রশ্নের জবাবে অমিত শাহ বলেন, মুসলমানরা সিএএ-তে অন্তর্ভুক্ত নন, কারণ পাকিস্তান, আফগানিস্তান এবং বাংলাদেশ ইসলামিক রাষ্ট্র। তাহলে সেখানে মুসলমানরা ধর্মীয় সংখ্যালঘু হবেন কী ভাবে?

উল্লেখ্য, সিএএ-তে বলা হয়েছে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মতো মুসলিম ধর্মাবলম্বী দেশ থেকে যদি সে দেশের ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা ধর্মীয় উৎপীড়নের কারণে এ দেশে আশ্রয় চান, তা হলে তা দেবে ভারত। কিন্তু সিএএ-তে হিন্দু, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ, পার্সি এবং খ্রিস্টান শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা বলা হলেও সেখানে মুসলিম সম্প্রদায়ভুক্তদের কথা উল্লেখ করা হয়নি। তা নিয়ে প্রশ্ন তোলে বিরোধী দলগুলি।

সিএএ নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিয়েছেন অমিত শাহ। মমতা বলেছিলেন যে তিনি বাংলায় সিএএ কার্যকর হতে দেবেন না। মঙ্গলবার উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়ার সভায় সিএএ-র বিরোধিতা জানিয়ে মমতা বলেন, “সিএএ একটা ভাঁওতা। বাংলায় ডিটেনশন ক্যাম্প করতে দেব না। সিএএ করতে দেব না। আমার জীবন দিতে তৈরি। কিন্তু মানুষের অধিকার কেড়ে নিতে দেব না।’ তাঁর কথায়, ‘ভোটের জন্য ধাপ্পা দিচ্ছে, ভাঁওতা দিচ্ছে। ভোটের আগে প্রতারণা করে নাগরিক অধিকার কেড়ে নিতে চাইছে। সিএএ নিয়ে কেন্দ্রের ঘোষণা বৈধ কি না, তা নিয়ে আমার সন্দেহ আছে।”

এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, বিরোধীরাও জানে যে ‘ইন্ডিয়া’ জোট ক্ষমতায় আসছে না। সিএএ আইনটি প্রধানমন্ত্রী মোদীর নেতৃত্বে বিজেপি সরকার এনেছে, এটি বাতিল করা অসম্ভব। নাগরিকত্ব একটি কেন্দ্রীয় বিষয় এবং কোনো রাজ্য সরকার সিএএ বাতিল করতে পারে না। তাই বিরোধীরা শুধু বলার জন্যই এ সব কথা বলে যাচ্ছেন। একই সঙ্গে তাঁর সংযোজন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানেন না, কাকে শরণার্থী আর কাকে অনুপ্রবেশকারী বলে।”

আরও পড়ুন: সিএএ কার্যকর দেশ জুড়ে, নবান্ন থেকে বার্তা মমতার

সাম্প্রতিকতম

হাইকোর্টে নিয়োগ দুর্নীতি মামলার রায়, কে কী বললেন?

সোমবার নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় রায় প্রকাশের পর মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দেন, তিনি চাকরিহারাদের পাশে আছেন। আদালের এই রায়ের নেপথ্যে তিনি বিজেপির হাত দেখছেন।

২০১৬-র নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল, হাইকোর্টের নির্দেশে চাকরি গেল প্রায় ২৬ হাজারের

কলকাতা: রাজ্য সরকার পোষিত ও সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলগুলিতে ২০১৬ সালে রাজ্যস্তরের পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগ করা...

তাপপ্রবাহের শেষে কালবৈশাখী, কিন্তু কলকাতা, হাওড়া, দক্ষিণ ২৪ পরগণা আদৌ বৃষ্টি পাবে তো?

শ্রয়ণ সেন পূর্ব ভারতের ইতিহাস বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাস বলে টানা কুড়ি দিন কখনো তাপপ্রবাহ...

২০২২ সালে আমেরিকার নাগরিকত্ব পেলেন ৬৬ হাজারেরও বেশি ভারতীয়, বিশ্বের মধ্যে দ্বিতীয়

মার্কিন জনগণনা ব্যুরোর আমেরিকান কমিউনিটি সার্ভের তথ্য অনুযায়ী, ২০২২ সালে আনুমানিক ৪ কোটি ৬০ লক্ষ বিদেশী বংশোদ্ভূত ব্যক্তি সে দেশে বসবাস করেছেন, যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মোট ৩৩ কোটি ৩০ লক্ষ জনসংখ্যার প্রায় ১৫ শতাংশ।

আরও পড়ুন

টাকা নিয়ে যোগশিক্ষা, দেননি পরিষেবা কর, অবিলম্বে মিটিয়ে দিতে রামদেবের সংস্থাকে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

সময়টা ভাল যাচ্ছে না যোগগুরুর। আগে বিভ্রান্তি কর বিজ্ঞাপন দেওয়া জন্য সুপ্রিম কোর্টের রোষে...

দূরদর্শনের লোগো হল গেরুয়া, প্রতিবাদ মমতার, ভোটের সময় কেন? কমিশনের হস্তক্ষেপ দাবি

শনিবার সমাজ মাধ্যমে মমতা লিখেছেন, 'নির্বাচনের সময় হঠাৎ লোগোর গেরুয়াকরণে আমি স্তম্ভিত।

জার্মানি, সুইৎজারল্যান্ডে নেই, ভারতের সেরেল্যাকে অত্যধিক চিনি, তদন্তের নির্দেশ

এ নিয়ে একটি আন্তর্জাতিক রিপোর্ট সামনে আসার সঙ্গে  তৎপর হল কেন্দ্র। ইতিমধ্যে নেসলে কোম্পানির শিশুখাদ্য নিয়ে তদন্ত শুরু করছে  স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের অধীন খাদ্য সুরক্ষা নিয়ন্ত্রক (এফএসএসএআই)।