Homeখবরদেশ‘ডিবুস্টিং’ সফল, কবে কখন ‘চন্দ্রযান ৩’ নামবে তা জানিয়ে দিল ইসরো, পাঠাল...

‘ডিবুস্টিং’ সফল, কবে কখন ‘চন্দ্রযান ৩’ নামবে তা জানিয়ে দিল ইসরো, পাঠাল ছবি   

প্রকাশিত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সব কিছু ঠিকঠাক চললে এবং পরিকল্পনামাফিক চললে ২৩ আগস্ট বুধবার ভারতীয় সময় সন্ধে ৬.০৪-এ চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে নামবে ভারতীয় মহাকশযান ‘চন্দ্রযান ৩’।

চাঁদে নামার দু-দিন আগে সোমবার ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংগঠন (ইসরো) ছবি পাঠিয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে ‘চন্দ্রযান ৩’ ঠিক কোন জায়গায় নামবে তা অনুসন্ধান করছে বিক্রম ল্যান্ডার।

ইতিমধ্যেই সফল ‘ডিবুস্টিং’ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ‘চন্দ্রযান ৩’ চাঁদের খুব কাছে চলে এসেছে। আপাতত সে রয়েছে ২৫ কিমি X ১৩৫ কিমি বিশিষ্ট কক্ষপথে।         

‘চন্দ্রযান ৩’-এর যাত্রা:

৬ জুলাই – ইসরো ঘোষণা করল, অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটার দ্বিতীয় উৎক্ষেপণমঞ্চ থেকে ‘চন্দ্রযান ৩’ চাঁদের উদ্দেশে পাঠানো হবে ১৪ জুলাই।

৭ জুলাই – যানের সমস্ত রকম বৈদ্যুতিক পরীক্ষা সাফল্যের সঙ্গে সম্পন্ন হল।

১১ জুলাই – ২৪ ঘণ্টার ‘উৎক্ষেপণ রিহার্সাল’ সাফল্যের সঙ্গে সম্পন্ন হল।

১৪ জুলাই – ইসরোর ‘এলভিএম৩ এম৪’ ‘চন্দ্রযান ৩’-কে তার নির্দিষ্ট কক্ষপথের উদ্দেশে উৎক্ষেপণ করল।

১৫ জুলাই – ‘চন্দ্রযান ৩’-কে তার প্রথম কক্ষপথে স্থাপন করার প্রক্রিয়া সফল ভাবে সম্পন্ন হল বেঙ্গালুরুতে। মহাকাশযান পৌঁছোল ৪১৭৬২ কিমি X ১৭৩ কিমি বিশিষ্ট কক্ষপথে।  

১৭ জুলাই – ৪১৬০৩ কিমি X ২২৬ কিমি বিশিষ্ট দ্বিতীয় কক্ষপথে ‘চন্দ্রযান ৩’-কে স্থাপন করা হল।

২২ জুলাই – ৭১৩৫১ কিমি X ২৩৩ কিমি বিশিষ্ট চতুর্থ কক্ষপথে সফল ভাবে স্থাপন করা হল ‘চন্দ্রযান ৩’-কে।

১ আগস্ট – ‘চন্দ্রযান ৩’-এর যাত্রায় উল্লেখযোগ্য মোড়। ২৮৮ কিমি X ৩৬৯৩২৮ কিমি বিশিষ্ট আন্তর্চান্দ্র কক্ষপথে প্রবেশ করল মহাকাশযান।

৫ আগস্ট – চাঁদের আরও কাছে। ১৬৪ কিমি X ১৮০৭৪ কিমি বিশিষ্ট কক্ষপথে ঢুকল ‘চন্দ্রযান ৩’।

৬ আগস্ট – চাঁদের আরও কাছে ‘চন্দ্রযান ৩’। ঢুকল ১৭০ কিমি X ৪৩১৩ কিমি বিশিষ্ট কক্ষপথে।

৯ আগস্ট – মহাকাশযান নেমে এল চাঁদের ১৭৪ কিমি X ১৪৩৭ কিমি বিশিষ্ট কক্ষপথে।

১৪ আগস্ট – চাঁদকে কেন্দ্র করে ১৫১ কিমি X ১৭৯ কিমি বিশিষ্ট কক্ষপথে ‘চন্দ্রযান ৩’।

১৬ আগস্ট – ফায়ারিং করে ১৫৩ কিমি X ১৬৩ কিমি বিশিষ্ট কক্ষপথে নিয়ে আসা হল ‘চন্দ্রযান ৩’-কে।

১৭ আগস্ট – বিক্রম ল্যান্ডার আর প্রজ্ঞান রোভার সমন্বিত ‘চন্দ্রযান ৩’-এর ল্যান্ডিং মডিউলটি প্রপালশন ব্যবস্থা থেকে আলাদা করা হল।

১৮ আগস্ট – মহাকাশযানের ‘ডিবুস্টিং’ প্রক্রিয়া চালানো হল। ফলে ‘চন্দ্রযান ৩’ চলে এল চাঁদের মাটির আরও কাছে। এখন ১১৩ কিমি X ১৫৭ কিমি বিশিষ্ট কক্ষপথে। ‘ডিবুস্টিং’ হল সেই প্রক্রিয়া যাতে মহাকাশযান চাঁদের একেবারে কাছের কক্ষপথে চলে যেতে পারে, যেখানে একেবারে কাছের বিন্দুটি (পেরিলিউন) ৩০ কিমি দূরে এবং সব চেয়ে দূরের বিন্দুটি (অ্যাপোলিউন) ১০০ কিমি দূরে।

২০ আগস্ট – ‘চন্দ্রযান ৩’-এর দ্বিতীয় ও চূড়ান্ত ‘ডিবুস্টিং’। মহাকাশযান এল ২৫ কিমি X ১৩৫ কিমি বিশিষ্ট কক্ষপথে।

২৩ আগস্ট – সব কিছু ঠিকঠাক চললে এবং পরিকল্পনামাফিক চললে এ দিন ‘চন্দ্রযান ৩’-এর চাঁদের মাটি স্পর্শ করার কথা।

সাম্প্রতিকতম

বাম হাতে ভাই ফোঁটা দিয়ে ডান হাতে মুছে দিতেন, ছোটবেলার সেই প্রেমের গল্প বললেন ইন্দ্রানী হালদার

অভিনেত্রী একাধিক প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছেন। পেতেন প্রচুর প্রেমপত্রও। ছোটবেলায় বন্ধু-বান্ধবীদের দাদা-ভাইদের থেকেও নাকি প্রচুর প্রেমপত্র পেয়েছিলেন অভিনেত্রী।

অক্ষয় তৃতীয়ার আগে ১০ দিনে সোনার দাম কমল প্রায় ৩ হাজার টাকা

শেষ ১০ দিনে প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম কমেছে ২,৯০০ টাকা। বর্তমানে সোনার দাম...

চাঁদিফাটা রোদে ত্বকের জেল্লা গায়েব, নিমেষে ফিরবে জেল্লা যদি করেন এই ৪ কাজ

এই দাবদহে বাড়ি থেকে বেরোতে হচ্ছে অনেককেই। আর তাতেই চেহারার হাল হচ্ছে যাতা। ঝলসে যাচ্ছে ত্বক।

সি বিচে প্লাষ্টিক কুড়াচ্ছেন মিমি চক্রবর্তী, দেখে হতবাক নেটবাসি, হঠাৎ কী হল অভিনেত্রীর?

এভাবেই একের পর এক আবর্জনা তুলে যাচ্ছেন সমুদ্রতট থেকে। এরপর জমা করছেন একটি বাস্কেটে। কিন্তু কেন এমন হাল অভিনেত্রীর? হঠাৎ আবর্জনা তুলছেন কেন?

আরও পড়ুন

টাকা নিয়ে যোগশিক্ষা, দেননি পরিষেবা কর, অবিলম্বে মিটিয়ে দিতে রামদেবের সংস্থাকে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

সময়টা ভাল যাচ্ছে না যোগগুরুর। আগে বিভ্রান্তি কর বিজ্ঞাপন দেওয়া জন্য সুপ্রিম কোর্টের রোষে...

দূরদর্শনের লোগো হল গেরুয়া, প্রতিবাদ মমতার, ভোটের সময় কেন? কমিশনের হস্তক্ষেপ দাবি

শনিবার সমাজ মাধ্যমে মমতা লিখেছেন, 'নির্বাচনের সময় হঠাৎ লোগোর গেরুয়াকরণে আমি স্তম্ভিত।

জার্মানি, সুইৎজারল্যান্ডে নেই, ভারতের সেরেল্যাকে অত্যধিক চিনি, তদন্তের নির্দেশ

এ নিয়ে একটি আন্তর্জাতিক রিপোর্ট সামনে আসার সঙ্গে  তৎপর হল কেন্দ্র। ইতিমধ্যে নেসলে কোম্পানির শিশুখাদ্য নিয়ে তদন্ত শুরু করছে  স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের অধীন খাদ্য সুরক্ষা নিয়ন্ত্রক (এফএসএসএআই)।