Homeরাজ্যপশ্চিম বর্ধমানদুর্গাপুর এনআইটি পড়ুয়ার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, বিক্ষোভ, দায় নিয়ে ডিরেক্টরের পদত্যাগ

দুর্গাপুর এনআইটি পড়ুয়ার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, বিক্ষোভ, দায় নিয়ে ডিরেক্টরের পদত্যাগ

প্রকাশিত

দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়াল এনআইটি দুর্গাপুরে। এই ঘটনায় বিক্ষোভে ফেটে পড়েন পড়ুয়ারা। তাঁদের অভিযোগ, কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতে মৃত্যু হয়েছে ওই পড়ুয়ার। বিক্ষোভের জেরে পদত্যাগ করেছেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ডিরেক্টর অরবিন্দ চৌবে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত পড়ুয়ার নাম অর্পণ ঘোষ। তিনি মেকানিক্যালের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। পড়ুয়াদের দাবি, পরীক্ষার সময় তিনি আইকার্ড নিয়ে যেতে ভুলে গিয়েছিলেন। তাই তাঁকে পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হয়নি। কর্তৃপক্ষের কাছে বিষয়টি জানিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি। তিনি হস্টেলে ফিরে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেন। পরে দুপুর নাগাদ তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়।

পড়ুয়ারা দাবি করেছেন, ঝুলন্ত অবস্থা থেকে তাঁকে উদ্ধার করার পরও তিনি বেঁচেছিলেন। কিন্তু অক্সিজেন না থাকায় এবং সময়মতো অ্যাম্বুলেন্স না আসায় তাঁর মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির বেঞ্চেই সোমবার চাকরি বাতিল মামলার শুনানি

অন্য একটি সূত্রে জানা গিয়েছে, ব্যান্ডেলের বাসিন্দা ওই পড়ুয়া মানসিক চাপে ভুগছিলেন। তিনি তাঁর বাবাকে ফোন করে চাপের কথা জানিয়েও ছিলেন। পড়ুয়াদের অভিযোগ, তাঁদের উপর মানসিক চাপ বাড়ছে। তার জেরেই এই ঘটনা।

ঘটনার দায় নিয়ে এনআইটি-র ডিরেক্টর পদত্যাগ করেছেন। আনন্দবাজারের প্রতিবেদন অনুযায়ী, তিনি পদত্যাগপত্রে চিকিৎসায় গাফিলতির কথা স্বীকারও করেছিলেন।

সাম্প্রতিকতম

NEET-UG 2024: প্রশ্নপত্র ফাঁসের অন্যতম পাণ্ডা এবং দুই ‘সল্ভার’ এমবিবিএস ছাত্রকে গ্রেফতার করল সিবিআই

খবর অনলাইন ডেস্ক: ডাক্তারি প্রবেশিকা পরীক্ষা নিট-ইউজি (NEET-UG 2024) প্রশ্নপত্র ফাঁসের অন্যতম পাণ্ডা এবং দুই...

তৃণমূলের শহিদ দিবসে কলকাতার একাধিক রাস্তায় যান নিয়ন্ত্রণ, পথে বেরোতে হলে জেনে নিন বিস্তারিত

তৃণমূলের শহিদ দিবস উপলক্ষে কলকাতার বিভিন্ন রাস্তায় যানজটের আশঙ্কা রয়েছে। কলকাতা পুলিশ আগেভাগেই বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে। রবিবার ধর্মতলা ও আশপাশের এলাকায় যান নিয়ন্ত্রণ থাকবে।

কারফিউতেও জারি মৃত্যু, ঢাকায় অন্তত ৭ জন নিহত

ঢাকা, বাংলাদেশ: কারফিউ সত্ত্বেও ঢাকায় হিংসার ঘটনা ঘটেছে, যার ফলে অন্তত ৭ জন নিহত হয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে শহরের বিভিন্ন স্থানে উত্তেজনা বিরাজ করছে এবং নিরাপত্তা বাহিনী কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করছে।

দীর্ঘ সময় ধরে বসে বসে একটানা কাজ, পিঠের ব্যথায় কাতর? কী খাবেন, কী বলছে গবেষণা

আজকাল বেশির ভাগ মানুষ একটানা বসে বসে এসির ঠান্ডা ঘরে কাজ করে। কাজের ব্যস্ততা...

আরও পড়ুন

বাড়তি মেদ ঝরানোর নয়া ট্রেন্ড ‘ওয়াটার ফাস্টিং’ কী? মানসিক স্বাস্থ্য ভাল রাখার ৮ টি অভ্যাস