Homeখবররাজ্যজোট গড়লে তৃণমূলকে হারানো সম্ভব, সাগরদিঘির জয়ে দাবি বাম-কংগ্রেসের

জোট গড়লে তৃণমূলকে হারানো সম্ভব, সাগরদিঘির জয়ে দাবি বাম-কংগ্রেসের

প্রকাশিত

শেষ তিন বার সাগরদিঘিতে জয়ী হয়েছিল তৃণমূল। তাই জোড়াফুল শিবিরের মনোবলও ছিল তুঙ্গে। কিন্তু তাদের সেই আত্মবিশ্বাসে জোর ধাক্কা দিলেন বাম সমর্থিত কংগ্রেস প্রার্থী বাইরন বিশ্বাস।

বৃহস্পতিবার সাগরদিঘি উপনির্বাচনের ভোটগণনার শুরু থেকেই এগিয়ে ছিলেন কংগ্রেস প্রার্থী। এককালে অধীররঞ্জন চৌধুরীর গড় বলে পরিচিত মুর্শিদাবাদে ফের হাতের জয়জয়কার। বাম সমর্থিত কংগ্রেস প্রার্থীর জয়ের খবরে উচ্ছ্বসিত জোট সমর্থকরা।

নির্বাচন কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে, তৃণমূল প্রার্থী দেবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায়কে ২২,৯৮০ ভোটে হারিয়ে জয়ী হয়েছেনন বাম সমর্থিত কংগ্রেস প্রার্থী বাইরন বিশ্বাস।

সাগরদিঘির উপনির্বাচনে জোট প্রার্থী বিপুল ব্যবধানে জয় বাম ও কংগ্রসকে যথেষ্ট উৎসাহ জুগিয়েছে। জোটের এই ফল রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রভাব ফেলবে বলে প্রত্যাশা করছে তারা। তাদের দাবি, গোটা বাংলাকে একটা বার্তা দিচ্ছে সাগরদিঘি। জোট গড়ে লড়তে পারলে তৃণমূলকে হারানো সম্ভব।

অন্য দিকে, অধীরের দাবি, “আমার একটাই কথা, এই নির্বাচন প্রমাণ করল, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অপরাজেয় নন। তাঁকে পরাজিত করা যেতে পারে। তৃণমূলকে বধিবে যে, মুর্শিদাবাদে বাড়িছে সে। এই বাংলায় চোরতন্ত্র উচ্ছেদ করে, গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করব। কংগ্রেস, বাম এবং অন্যান্য সমস্ত সঙ্গী দল মিলে।”

২০১১ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত টানা ৩টি বিধানসভা নির্বাচনে এই আসনে জোড়াফুল ফুটেছিল। তবে এ বার আসনটি ছিনিয়ে নিল কংগ্রেস। গত বিধানসভায় সাগরদিঘিতে প্রায় ৫০ হাজার ভোটে জিতেছিলেন তৃণমূল প্রার্থী, অধুনা প্রয়াত সুব্রত সাহা। সেই আসনে মাত্র ২ বছরের ব্যবধানে দল প্রায় ২৩ হাজার ভোটে হারল কীভাবে, তা নিয়ে জোড়াফুল শিবিরেও চর্চা শুরু হয়েছে।

সাম্প্রতিকতম

অযোধ্যা যাওয়ার সরাসরি উড়ান ক্রমশ কমিয়ে দিচ্ছে স্পাইসজেট

খবর অনলাইন ডেস্ক: দেশের বিভিন্ন শহর থেকে অযোধ্যা যাওয়ার সরাসরি উড়ান ক্রমশ বন্ধ করে...

২০২৪-এ উচ্চশিক্ষার জন্য আমেরিকা যাওয়া ভারতীয়দের বড় অংশ পূর্বাঞ্চল থেকে: মার্কিন কনসাল

সম্প্রতি বেশ কয়েকজন ভারতীয় শিক্ষার্থী ভিসা সমস্যার কারণে আমেরিকা পৌঁছানোর পর ফেরত পাঠানো হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

সিকিমে আটকে ১২০০ পর্যটক, আবহাওয়া অনুকূল হলে বিমানে উদ্ধারের পরিকল্পনা

সিকিমের পরিস্থিতির কারণে ১০ নম্বর জাতীয় সড়ক বিপর্যস্ত হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে পর্যটকদের যাতায়াতের জন্য বিকল্প পথ নির্ধারণ করেছে পশ্চিমবঙ্গের কালিম্পঙের জেলা প্রশাসন।

কসবার অ্যাক্রোপলিস মলে বিধ্বংসী আগুন, ঘটনাস্থলে দমকলের ১৫টি ইঞ্জিন  

নিজস্ব প্রতিনিধি: তীব্র গরমে কলকাতা-সহ পুরো দক্ষিণবঙ্গ যখন ধুঁকছে ঠিক সেই সময়ে আগুন লাগার...

আরও পড়ুন

স্বস্তির খবর, বৃহস্পতি-শুক্র নাগাদ দক্ষিণবঙ্গে বর্ষা আসার সম্ভাবনা

শ্রয়ণ সেন গরমে প্রাণ ওষ্ঠাগত। কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলি গরমে ধুঁকছে। তাপমাত্রা ৩৭-৩৮ ডিগ্রি হলেও ‘রিয়েল...

দক্ষিণবঙ্গে বর্ষার জন্য এখনও অন্তত দিনসাতেকের অপেক্ষা, তবে হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রোজ   

খবর অনলাইন ডেস্ক: গরমে আবার হাঁসফাঁস অবস্থা কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে। সারা দিন ভ্যাপসা গরম। ভ্যাপসা...

কলকাতায় বিজেপি-র পার্টি অফিস খাঁ খাঁ, বাইরে যথারীতি পুলিশি প্রহরা

কলকাতা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর 'চারশো পার'-এর স্বপ্ন চুরমার। বাংলায় যা ছিল, সেটাও ধরে রাখতে...