Homeজীবন যেমনসম্পর্কসম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে চাইলে ফেব্রুয়ারি মাসে এই ৫টি ভুল ভুলেও করবেন না

সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে চাইলে ফেব্রুয়ারি মাসে এই ৫টি ভুল ভুলেও করবেন না

প্রকাশিত

মন দিয়ে বসে আছেন নিজের পছন্দের মানুষকে। প্রেমের সবচেয়ে বড় উদ্দেশ্য পুরো জীবন একসঙ্গে থাকতে চাওয়া। বিয়ের প্রতিশ্রুতি নিয়েই বেশিরভাগ মানুষ প্রেমের সম্পর্কে জড়াতে চায়। বাকি জীবন ঠিকভাবে এগিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করতে চান দু’জনে মিলে।

কিন্তু প্রেম ও দাম্পত্যের সম্পর্কের ক্ষেত্রে ফেব্রুয়ারি মাসটি খুবই স্পেশাল! এই মাসেই নতুন সম্পর্কের শুরু থেকে সম্পর্ক মজবুত করার অনেক সুযোগ রয়েছে। তবে অবাক করা বিষয় হলো, সবচেয়ে বেশি ব্রেকআপ ঘটে প্রেমের মাস এই ফেব্রুয়ারিতেই। এর পিছনে মূলত তিনটি কারণ তুলে ধরছেন সম্পর্ক বিশেষজ্ঞরা।

জেনে নেওয়া যাক সেই গুরুত্বপূর্ণ কারণগুলি।

১। অপূর্ণ প্রত্যাশা, সঙ্গীর দোষ খোঁজা-

ফেব্রুয়ারি মাসে নতুন সম্পর্কের ইঙ্গিত, নতুন বন্ধুত্বের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এর পাশাপাশি এই সময় উপহার পাওয়া বা বিশেষ দিন সেলিব্রেট করার প্রত্যাশা অনেকের মধ্যেই প্রবল থাকে। এই প্রত্যাশাগুলো পূরণ না হলেই সঙ্গীর নানা দোষ খুঁজে পেতে শুরু করেন সম্পর্কে থাকা দুটি মানুষ। সম্পর্ক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রেমের মাস ফেব্রুয়ারিতে নতুন সঙ্গী খোঁজার চেষ্টা করে তরুণরা। এর ফলে নতুন সম্পর্ক গঠন এবং বিচ্ছেদের আশঙ্কা বেড়ে যায়।

২। একঘেয়েমি ও তিক্ততা-

সম্পর্ক বেশি সময় অতিবাহিত হলে একঘেয়েমি তৈরি হয়। এছাড়া বর্তমান সময়ে মানুষ ব্যক্তি স্বাধীনতার ধারণা নিয়ে এগোচ্ছে। এই কারণ ছাড়াও এমন অনেক কারণ রয়েছে, যার জন্য মানুষ পুরনো সম্পর্ক ভাঙতে এক মিনিটও সময় নেয় না।

৩। সম্পর্কের মধ্যে প্রতিযোগিতা-

সম্পর্কের ক্ষেত্রে বিভিন্ন পরিস্থিতির মুখোমুখি হন প্রতিটি দম্পতিই। কোথাও ইতিবাচকতা আবার কোথাও নেতিবাচকতা।

ফেব্রুয়ারি মাসে অনেক দম্পতি ভ্রমণ, আউটিং বা অন্য উপায়ে সম্পর্ককে উপভোগ করেন। অন্যদিকে, কিছু কারণে অনেকে এই আনন্দ থেকে বঞ্চিত হন। অন্যের সুখ দেখেও অনেক দম্পতির মধ্যে সমস্যা, সাধ্যের বেশি প্রত্যাশা তৈরি হয়। এই ধরনের মানসিক সমস্যা, ঈর্ষার কারণে ব্রেকআপ হতে পারে।

৪। কথা না বলা-

প্রতিটি সম্পর্কেই কথা বলা খুবই জরুরি। কথার মাধ্যমেই একটি মানুষ অপর মানুষটিকে জানতে পারেন, তাঁকে বুঝতে পারেন। তারপরই সম্পর্ক এগিয়ে যায়। তবে বহু মানুষ সম্পর্কে আসার পরও সঙ্গীর সঙ্গে কথা বলতে চান না। এমনকী ফোন, মেসেজের রিপ্লাই পর্যন্ত দেন না। এমন সব ক্ষেত্রে ব্রেকআপ হওয়াটাই স্বাভাবিক।

৫। দেখা না করা-

নতুন সম্পর্কে দেখা করাটা ভীষণ প্রয়োজনীয়। দেখা করার মাধ্যমেই একে অপরকে কাছ থেকে জানা যায়। আর কাছ থেকে পরস্পরকে দেখে নিতে পারলেই সম্পর্ক ভালো হয়। তবে সকলে এই তত্ত্বে বিশ্বাসী নন। তাঁরা দেখা করতে চান না। সেক্ষেত্রে সম্পর্ক ব্রেকআপের দিকে এগোতে থাকে।

সম্পর্কে সমস্যা? সমাধানে পড়ুন আমাদের সম্পর্ক বিভাগের লেখাগুলি।

সাম্প্রতিকতম

আইসিসি টি২০ বিশ্বকাপ ২০২৪: রোহিতের রুদ্র মূর্তি, অস্ট্রেলিয়াকে ২৪ রানে হারিয়ে সেমিফাইনালে ভারত   

ভারত: ২০২৫-৫ (রোহিত শর্মা ৯২, সূর্যকুমার যাদব ৩১, মিশেল স্টার্ক ২-৪৫, মার্কাস স্টয়নিস ২-৫৬) অস্ট্রেলিয়া:...

অযোধ্যার রামমন্দিরের ছাদ থেকে জল ‘লিক’ করছে, জানালেন প্রধান পুরোহিত

অযোধ্যা (উত্তরপ্রদেশ): প্রাণপ্রতিষ্ঠা করার মাসছয়েকের মধ্যেই অযোধ্যার রামমন্দিরের ছাদ থেকে জল ‘লিক’ করছে। ঠিক...

মহাকাশ থেকে দেখা ‘রাম সেতু’: অত্যাশ্চর্য ছবি শেয়ার ইউরোপীয় সংস্থার

রাম সেতুর একটি ছবি প্রকাশ করেছে ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি (ESA)। এই সেতুটি আদম ব্রিজ...

বাংলাদেশের সঙ্গে ফরাক্কা, তিস্তা চুক্তি প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীকে কড়া চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর

শনিবার দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি বৈঠক হয়। সেই...

আরও পড়ুন

ওপেন রিলেশনশিপ রাখতে চায় সঙ্গী? সিদ্ধান্ত নিন এই ৫ টিপসকে অনুসরণ করে   

অনেক বছর ধরেই ফেসবুকের স্টেটাস অপশনে ‘ওপেন রিলেশনশিপ’ বলে একটা অপশন দেখা যাচ্ছে। যারা একাধিক সম্পর্কে বিশ্বাস করেন, মূলত তাঁদের কথা ভেবেই তৈরি নতুন এই রিলেশনশিপ স্টেটাস। এঁদের সম্পর্কে কোনও পিছুটান নেই। অধিকারবোধও নেই।

সম্পর্কের মধুরতা বজায় রাখতে মনের মানুষকে আগলে রাখুন এই ৫ টি উপায়ে   

প্রায় প্রত্যেকের জীবনেই এমন কিছু অনুভূতি থাকে, যা থাকে একান্ত ব্যক্তিগত। সেখানে কারোর অনুপ্রবেশ থাকে না। এমন কিছু মুহূর্ত থাকে, এমন কিছু কথা থাকে যা কারোর সঙ্গে শেয়ারও করা যায় না।

মনের মানুষের উত্তর জানবেন কীভাবে? ভ্যালেন্টাইন্স ডে-তে এই ৭ উপায়ে প্রোপোজ করে দেখুন

হাতেগোনা মাত্র কয়েকটা দিন বাকী ভ্যালেন্টাইন্স ডে-র। কাউকে কী মনে ধরেছে? বলা হয়ে ওঠেনি এখনও। তাহলে প্রেম দিবসের দিনই গুছিয়ে মনের কথাটা মনের মানুষকে বলে ফেলুন।