Homeখবরকলকাতাআনন্দ উৎসব! হোমিওপ্যাথির স্বার্থে বিশেষ উদ্যোগ বিএইচসিডিএ-র

আনন্দ উৎসব! হোমিওপ্যাথির স্বার্থে বিশেষ উদ্যোগ বিএইচসিডিএ-র

প্রকাশিত

কলকাতা: “চিকিৎসক যতই ভালো হন, ওষুধ ভালো না হলে সেই চিকিৎসা পদ্ধতির প্রসার ঘটতে পারে না। আর যদি ওষুধ ভালো হয়, তা হলে চিকিৎসক বাঁচবেন, ওষুধ প্রস্তুতকারী থেকে দোকানদার বাঁচবেন, সর্বোপরি রোগী বাঁচবেন”। বুধবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে আয়োজিত একটি সাংবাদিক সম্মেলনে এমনটাই মন্তব্য বিশিষ্ট হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক প্রকাশ মল্লিকের।

এ দিন প্রেস ক্লাবে একটি সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেছিল হোমিওপ্যাথি ওষুধ বিক্রেতাদের সংগঠন বেঙ্গল হোমিওপ্যাথিক কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রাগিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের (বিএইচসিডিএ) উত্তর কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনা শাখা। আগামী ২২ জানুয়ারি বরানগর রবীন্দ্রভবনে ‘আনন্দ উৎসব ২০২৩’ শীর্ষক একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে তারা। বহুবিধ উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে ওই অনুষ্ঠানে হোমিওপ্যাথি গবেষণা এবং চিকিৎসায় বিশেষ অবদানের জন্য ‘হোমিওজ্যোতি’ এবং ‘হোমিওরত্ন’ নামে দু’টি পুরস্কার প্রদান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংগঠন। এ ছাড়াও বিভিন্ন ক্ষেত্রের কৃতীদেরও সম্মানিত করার পাশাপাশি থাকছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। ওই অনুষ্ঠানেরই বিস্তারিত পরিকল্পনার কথা উদ্যোক্তারা এ দিন তুলে ধরেন প্রেস ক্লাবের সাংবাদিক সম্মেলনে।

বাংলায় হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা এবং ওষুধের কদর বরাবরই। তবে শুধু ভারতবর্ষ নয়, পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই হোমিওপ্যাথি সমাদৃত। উৎসব কমিটির সভাপতি জয়দীপ রায় জানান, ইউরোপের ৭২ শতাংশ মানুষ হোমিওপ্যাথি ওষুধে নির্ভরশীল। সমাজের প্রতিটা স্তরের মানুষের কাছে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসার সুবিধার কথা পৌঁছে দিতে বদ্ধপরিকর তাঁরা। তাঁর কথায়, সামাজিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে একেবারে তৃণমূল স্তরের মানুষের কাছে এর সুবিধা পৌঁছে দিতে পারলে সর্বাংশে হোমিওপ্যাথির প্রচার এবং প্রসার ঘটবে। পাশাপাশি এ ব্যাপারে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণও করা হয়েছে।

এ দিনের সাংবাদিক সম্মেলনে বাড়তি পাওনা হিসেবে ছিল রাজ্যের বিশিষ্ট চিকিৎসক এবং হোমিওপ্যাথি ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলির কর্ণধারদের উপস্থিতি। ছিলেন ‘আনন্দ উৎসব ২০২৩’-এর টাইটেল স্পনসর শেঠ দে অ্যান্ড হোমিও কোম্পানির কর্ণধার সৌম্যশঙ্কর দে। তিনি বলেন, “আমরা হোমিওপ্যাথিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাইছি। আমরা সবাই এই সিস্টেমের সঙ্গে যুক্ত। আগামী ২২ জানুয়ারির ‘আনন্দ উৎসব ২০২৩’ আদতে হোমিওপ্যাথির স্বার্থেই”।

এ দিনের সংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত থেকে মূল্যবান মন্তব্য পেশ করেন বিএইচসিডিএ-র কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সচ্চিদানন্দ চৌধুরী এবং অ্যালেন ল্যাবরেটরিজের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ডা. জিপি সরকার প্রমুখ।

আরও পড়ুন: কালীঘাটের আদলে তৈরি হচ্ছে দমকল কেন্দ্র, আসছে ড্রোন

সাম্প্রতিকতম

স্থুলতায় সন্তানধারণে কী প্রভাব পড়ছে, কী তথ্য উঠে এল গবেষণায়

সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় দেখা গেছে, স্থুলতা বা অতিরিক্ত ওজনের কারণে মস্তিষ্কের হাইপোথ্যালামাস অংশ শুক্রাণুর...

খরচ বেড়েছে মোবাইলের, স্মার্টফোনের ডেটা ব্যবহার কীভাবে নিয়ন্ত্রণে রাখবেন

ভারতের প্রায় সমস্ত টেলিকম অপারেটরই প্রিপেড ও পোস্টপেড মোবাইল কানেকশনের দাম ১৫% পর্যন্ত বাড়িয়েছে।...

২০২৪ সালের নিট-ইউজি পরীক্ষা বাতিলের আবেদন খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট

সুপ্রিম কোর্ট ২০২৪ সালের নিট-ইউজি পরীক্ষা বাতিলের আবেদন খারিজ করেছে। প্রধান বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ জানিয়েছে, পরীক্ষায় সামগ্রিক পদ্ধতিগত লঙ্ঘনের প্রমাণ নেই। তবে কিছু অনিয়ম ঘটেছে মেনে নিয়েছে শীর্ষ আদালত।

দুর্গাপুজো কমিটিগুলির জন্য সরকারি অনুদান বৃদ্ধি, বিদ্যুৎ বিলে বাড়ছে ছাড়ও, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দুর্গাপুজো কমিটিগুলির জন্য অনুদান বাড়ানোর ঘোষণা করেছেন। চলতি বছর ৪৩ হাজার ক্লাবকে ৮৫ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হবে, যা ২০২৫ সালে এক লক্ষ টাকায় পৌঁছাবে। বিদ্যুৎ বিলে ৭৫ শতাংশ ছাড়ের কথাও ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন

২ মাসের মধ্যে কলকাতায় সিএনজি সরবরাহের উন্নতি, জানালেন পরিবহণ মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী

কলকাতায় সিএনজি সরবরাহের সমস্যা সমাধানের জন্য গলসি থেকে কল্যাণী পর্যন্ত পাইপলাইন বসানোর কাজ দ্রুত এগোচ্ছে। পরিবহণ মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী জানিয়েছেন, দুই মাসের মধ্যে কল্যাণীতে সিএনজি সরবরাহ শুরু হবে, যা কলকাতায় প্রতিদিন ৫১ টন গ্যাস সরবরাহ করবে।

অ্যাপ ক্যাব পরিষেবা নিয়ে অভিযোগ, স্থায়ী অফিস , ২৪ ঘণ্টার কলসেন্টার চালুর নির্দেশ পরিবহণ মন্ত্রীর

অ্যাপ ক্যাব পরিষেবা নিয়ে যাত্রীদের অভিযোগ সমাধানে পরিবহণ মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী অ্যাপ ক্যাব সংস্থাগুলিকে স্থায়ী অফিস ও ২৪ ঘণ্টার কলসেন্টার চালুর নির্দেশ দিয়েছেন।

শপথ পাঠ ‘অসাংবিধানিক’ জানিয়ে সায়ন্তিকা-রেয়াতকে চিঠি রাজ্যপালের, জরিমানার হুঁশিয়ারি

রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস দুই তৃণমূল বিধায়ক সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রেয়াত হোসেনের শপথবাক্যকে অসাংবিধানিক ঘোষণা করেছেন। তাদের ভোটাভুটিতে অংশ নিলে শাস্তির সম্ভাবনার কথাও উল্লেখ করেছেন।
ইন্টারভিউয়ে কীরকম শরীরী ভঙ্গিমা থাকা উচিত বাড়তি মেদ ঝরানোর নয়া ট্রেন্ড ‘ওয়াটার ফাস্টিং’ কী?