দুবাইয়ে চলছিল চিকিৎসা, প্রয়াত পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশারফ

0

ইসলামাবাদ: প্রয়াত পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জেনারেল পারভেজ মুশারফ। দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৯।

মিডিয়া রিপোর্টে প্রকাশ, পাকিস্তানের প্রাক্তন সেনাশাসক দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। তিনি অ্যামাইলয়েডসিস নামের এক বিরল রোগে ভুগছিলেন। রবিবার সকালে মুশারফের পরিবারের তরফে তাঁর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে একটি অফিসিয়াল বিবৃতি জারি করা হয়। জানা গিয়েছে, গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই দুবাইয়ের ‘আমেরিকান হসপিটাল’-এ ভর্তি ছিলেন তিনি। রবিবার সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

১৯৪৩-এর ১১ অগস্ট অবিভক্ত ভারতের দিল্লিতে জন্ম পারভেজের। মাত্র ১৮ বছর বয়সে তিনি পাকিস্তানের সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। ধাপে ধাপে সেনাপ্রধান এবং দেশের ক্ষমতা দখল করেন তিনি। সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে নওয়াজ শরিফকে হটিয়ে ১৯৯৯ সালে পাকিস্তানের ক্ষমতা দখল করেন পারভেজ মোশাররফ। ২০০১ থেকে ২০০৮ পর্যন্ত তিনি পাকিস্তানের শাসক ছিলেন। ২০০৮ সালে পদত্যাগে বাধ্য হন তিনি।

কার্গিল যুদ্ধের সময় পাকিস্তানের অন্যতম মাথা ছিলেন মুশারফ। পরে দেশ বিরোধী কার্যকলাপ, বিশ্বাসঘাতকতা ও সংবিধান রদ করার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করা হয় তাঁকে। ২০১৯ সালে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয় মুশারফকে। তবে পরবর্তী সময়ে মৃত্যুদণ্ড বাতিল হয়।

উন্নত চিকিৎসার উদ্দেশ্যে ২০১৬ সালের মার্চে দেশ ছাড়েন মুশারফ। তারপর আর তিনি দেশে ফেরেননি। মৃত্যুর পর তাঁর দেহ পাকিস্তানে ফিরিয়ে আনা হবে কি না, সে সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি।

আরও পড়ুন: গুপ্তচর বেলুন গুলি করে নামানোয় আমেরিকাকে হুঁশিয়ারি চিনের

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন