Homeরাজ্যদঃ ২৪ পরগনাবিনা কর্ষণে সূর্যমুখী ও ভুট্টার পরীক্ষামূলক চাষ শুরু জয়নগরে

বিনা কর্ষণে সূর্যমুখী ও ভুট্টার পরীক্ষামূলক চাষ শুরু জয়নগরে

প্রকাশিত

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, জয়নগর: এ বার জয়নগর-২ ব্লকে শুরু হল বিনা কর্ষণে সূর্যমুখী ও ভুট্টা ফলনের পরীক্ষামূলক চাষাবাদ। এই চাষ করে লাভবান হয়েছেন প্রান্তিক কৃষক জয়দেব পুরকাইত। তাঁর এই সাফল্যের পর এই চাষ দেখতে সেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন গ্রামবাসীরা।

জল সংকটের সমাধান

jaynagar 2a

জয়দেব পুরকাইতের বাড়ি জয়নগর-২ ব্লকের ৯ নম্বর সোনাটিকারিতে। সেখানে তাঁর মতন আরও ৪০ জন কৃষক এই চাষ করেছেন। মূলত এই এলাকায় আগে আলু চাষ হতো। সে ক্ষেত্রে জলের অপচয় হতো প্রচুর হারে। তাঁর উপর এই এলাকা-সহ সুন্দরবনের বিস্তীর্ণ এলাকায় রয়েছে জলের সংকট। চাষের জন্য জল পাওয়া যায় না বহু জায়গায়।

সেই সমস্যার সমাধান করতে এবারে উদ্যোগী হয়েছে জয়নগর -২ ব্লক কৃষি অফিস। সমস্যার সমাধান করতে কৃষকদের দেওয়া হয়েছে ড্রিপ মেশিন। যার সাহায্যে জল ফোঁটা, ফোঁটা করে ফেলা হচ্ছে নির্দিষ্ট জায়গায়। ফলে জলের অপচয় রোধ করা যাচ্ছে। সেই সঙ্গে জমিতে বিনা কর্ষণে কী ভাবে চাষ করা যায়, সেই দিকটিও দেখানো হচ্ছে কৃষকদের। সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটিকে বলা হচ্ছে ড্রিপ ইরিগেশান এন্ড নো টিলেজ সিস্টেম। যার মাধ্যমে কৃষকরা লাভবান হবেন বলে মনে করা হচ্ছে‌।

বিনা কর্ষণে চাষ

jaynagar 2b

সম্প্রতি এই কাজ খতিয়ে দেখতে এলাকায় গিয়েছিলেন জয়নগর-২ ব্লকের সহ কৃষি অধিকর্তা অন্তিমা হালদার, সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক সৌরভ মাজি-সহ অন্যান্য আধিকারিকরা।

শীতের শুরুতেই এলাকায় শুরু হয়েছিল এই সূর্যমুখী ও ভুট্টা চাষ। মূলত বর্ষার সময় নীচু জমিতে জল জমে থাকে। সেই জল শুকিয়ে জমি তৈরি করতে অনেকটাই সময় লেগে যেত কৃষকদের। তবে এ বার এই পদ্ধতিতে কৃষকদের জমিতে আর কোনো কর্ষণ করতে হবে না। তাঁরা সরাসরি জমিতে বীজ বপন করবেন। জমির কোনো বাহ্যিক পরিবর্তন না করে। এ ক্ষেত্রে জমির নরম মাটিতে নির্দিষ্ট দূরত্বে দুটি করে দানা বপন করা হচ্ছে।

এই চাষের মাধ্যমে কৃষকরা ১ বিঘা জমিতে প্রায় ৩ কুইন্টাল সূর্যমুখীর দানা তুলতে পারবেন‌। শীতের শেষে সেই ফসল ফলতে শুরু করেছে। যার ফলে খুশি চাষিরা। আর তাঁদের এই পরামর্শে কাজ হওয়ায় খুশি ব্লক কৃষি আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন: বিনা কর্ষণে সূর্যমুখী চাষ, পরীক্ষামূলক ভাবে শুরু সুন্দরবনের মথুরাপুরে

সাম্প্রতিকতম

সৌদি আরবে তীব্র গরমে সাড়ে ৫০০ জন হজযাত্রীর মৃত্যু

হজযাত্রা শুরু হতেই বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লাখ লাখ পুণ্যার্থী সৌদি আরবে এসে ভিড় করছেন। প্রশাসন সূত্রে খবর, এখনও পর্যন্ত প্রায় ১৮ লক্ষ মানুষ হজে এসেছেন, যার মধ্যে বিদেশ থেকে এসেছেন ১২ লক্ষ হজযাত্রী।

ইউরো কাপ ২০২৪: এক গোলে পিছিয়ে থেকে চেকিয়াকে ২-১ গোলে হারাল পর্তুগাল

পর্তুগাল: ২ (রবিন রানাক, আত্মঘাতী, ফ্রান্সিসকো কনসাইকাও) ...

ইউরো কাপ ২০২৪: সমানে সমানে লড়ল দুই দেশ, ৩-১ গোলে জর্জিয়াকে হারাল তুরস্ক

তুরস্ক: ৩ (মার্ত ম্যুলদ্যুর, আর্দা গ্যুলার, কেরেম আকত্যুরকোগলু) ...

স্বামীর ‘বংশরক্ষা’র দাবি, স্ত্রীকে একাধিক পুরুষ দিয়ে ধর্ষণ, হাই কোর্টের দ্বারস্থ নির্যাতিতা

দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর থানা এলাকার এক মহিলার চাঞ্চল্যকর অভিযোগে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। থ্যালাসেমিয়ার...

আরও পড়ুন

স্বামীর ‘বংশরক্ষা’র দাবি, স্ত্রীকে একাধিক পুরুষ দিয়ে ধর্ষণ, হাই কোর্টের দ্বারস্থ নির্যাতিতা

দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর থানা এলাকার এক মহিলার চাঞ্চল্যকর অভিযোগে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। থ্যালাসেমিয়ার...

মাঠে নেমেছে প্রশাসন ও দল, জোড়া ‘কৌশলে’ নিভবে কি সন্দেশখালির ক্ষোভের আগুন?

দলীয় সূত্রে খবর, তিনমন্ত্রীর হাত দিয়ে টাকা ফেরানোর কাজ শুরু হয়েছে। এর আগে মন্ত্রী পার্থ ভৌমিক স্বীকার করেছিলেন, গত দু’বছর ইজারার টাকা, ভেড়ির টাকা না দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

‘উত্তপ্ত’ সন্দেশখালিতে জারি ১৪৪ ধারা, থমথমে এলাকা

কলকাতা: উত্তপ্ত সন্দেশখালিতে জারি ১৪৪ ধারা! শুক্রবার রাত থেকে ত্রিমোহিনী বাজার-সহ সন্দেশখালি থানা এলাকায় ১৪৪...