Homeউৎসবশিব শম্ভুর ১২ টি মন্দিরের পৌরাণিক কাহিনি সম্পর্কে জেনে নিন

শিব শম্ভুর ১২ টি মন্দিরের পৌরাণিক কাহিনি সম্পর্কে জেনে নিন

প্রকাশিত

হিন্দু পুরাণ মতে শিবশক্তির আলোকজ্যোতি পুজার্চনার যোগ্য। সেই উদ্দেশে সারা দেশে প্রায় ১২ টি জায়গায় মহাদবের জ্যোর্তিলিঙ্গের উপাসনা করা হয়। ভারতের বিভিন্ন জায়গায় শিবের এই জ্যোর্তিলিঙ্গের মন্দির স্থাপিত হয়েছে। প্রতিটি মন্দিরের স্থাপনার নেপথ্যে রয়েছে নানান পৌরাণিক কাহিনি। পৌরাণিক কাহিনিই হোক বা মন্দিরের দৃশ্যপট, সব মিলিয়ে এই মন্দিরগুলি তীর্থযাত্রী তথা পর্যটকদের অত্যন্ত আকর্ষণের বিষয়। দেখে নেওয়া যাক কোথায় কোথায় রয়েছে এই জ্যোর্তিলিঙ্গগুলি, আর তার নেপথ্যের কাহিনি।

১। সোমনাথ-

গুজরাতের সোমনাথ মন্দির শিবশক্তির জ্যোর্তিলিঙ্গগুলির মধ্যে অন্যতম পবিত্র মন্দির বলে মনে করেন হিন্দুরা। কথিত রয়েছে , এই মন্দির ১৬ বার ধ্বংস ও ১৬ বার পুনর্নির্মাণ করা হয়েছে। পুরাণ মতে, দক্ষের কাছ থেকে অভিশাপ পায় চন্দ্র। অভিশাপ পেয়ে চন্দ্রের আলো কমে যায়। ফলে সমস্ত বিশ্ব অন্ধকার হওয়ার ভয়ে, দক্ষের কাছে দরবার করেন বাকি দেবতারা। তখন দক্ষ জানান যে, যদি মহাদেব শিবের পূজা করেন চন্দ্র, তাহলেই তাঁর আলো ফিরে আসবে। এরপর চন্দ্র শিবের পুজা শুরু করলে , তাঁর আলো ফিরে আসে শিবশক্তির জ্যোতির আশির্বাদে। সেই কাহিনির স্মরণেই গুজরাতের সোমেশ্বর মন্দির। পুর্ণিমার রাতে এই মন্দির অসামান্য সুন্দর দেখতে লাগে।

২। মল্লিকার্জুন মন্দির-

অন্ধ্র প্রদেশের রায়ালসীমায় রয়েছে মল্লিকার্জুন মন্দির। দক্ষিণ ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের শ্রীশৈলমে অবস্থিত একটি শিব মন্দির। এটি শিবের পবিত্রতম বারোটি জ্যোতির্লিঙ্গ মন্দিরের অন্যতম। কথিত রয়েছে যে, একবার শিব, বিষ্ণু, ও ব্রহ্মার মধ্যে শ্রেষ্ঠত্ব নিয়ে বিতর্ক ওঠে, তখনই শিব ব্রহ্মা ও বিষ্ণুকে একটি পরীক্ষায় ফেলেন। যার পর শিব ত্রিভুবনকে একটি অনন্ত আলোর লিঙ্গ বা জ্যোতির্লিঙ্গ দ্বারা বিভক্ত করেছিলেন। শিবের সেই রূপকে এই মন্দিরে পূজা করা হয়। অনেকে বলেন, শিব পার্বতীর কথা শুনে কার্তিকের রাগের প্রেক্ষিতেও শিবের জ্যোতির উদয়মানতাকে এখানে পুজা করা হয়।

৩। মহাকালেশ্বর মন্দির-

উজ্জয়িনীর মহাকালেশ্বরে মনে করা হয় শিব স্বয়ম্ভূ। অর্থাৎ তিনি নিজেই উত্থিত হয়েছেন। রূদ্রসাগরের তীরে অবস্থিত এই মন্দির । পুরাণ মতে, দুশন নামের এক রাক্ষসের হাত থেকে উজ্জয়িনীবাসীদের মুক্তি দেওয়ার পর থেকে শিবকে এখানে মহাকালেশ্বর রূপে পুজা করা হয়।

৪। ওমকারেশ্বর-

মধ্যপ্রদেশের ওমকারেশ্বর মন্দিরও যথেষ্ট বিখ্যাত। মনে করা হয় রাজা মান্ধাতা শিব পুজার জন্য এই মন্দির স্থাপন করেন।

৫। কেদারনাথ-

বিখ্যাত এই জ্যোর্তিলিঙ্গকে নিয়ে মহাভারতের এক কাহিনি রয়েছে। পান্ডবরা নিজেদের পাপ স্খলন করতে শিব পূজা করেত চান। তবে তার জন্য তাঁদের প্রয়োজন হয় ,জ্যোর্তিলিঙ্গের। যে জ্যোর্তিলিঙ্গ তাঁরা দেখতে পান কেদারনাথে। সেই জ্যোর্তিলিঙ্গের স্থানেই গড়ে ওঠে মন্দির।

৬। ভীমশঙ্কর-

ষষ্ঠ জ্যোর্তিলিঙ্গটি ছিল মহারাষ্ট্র পুনের ভিমশঙ্করে। ভীম নামের এক দানবকে রক্ষা করে ভক্তদের রক্ষা করেন শিব। তারপর শিবের আরাধনার জন্য গড়ে ওঠে পুনের এই মন্দিরের জ্যোর্তিলিঙ্গ।

৭। কাশী বিশ্বনাথ মন্দির-

উত্তর প্রদেশের বারাণসীর কাশী বিশ্বনাথ মন্দির হল সপ্তম জ্যোর্তিলিঙ্গ। পুরাণ মতে, এই কাশী শহরটির মালিক স্বয়ং শিব। হিন্দু মতে এই নগরী গড়ে ছিলেন শিবই। সেই বিশ্বাস থেকে এই জ্যোর্তিলিঙ্গের প্রতি ভক্তদের প্রবল আস্থা।

৮। ত্রিম্বকেশ্বর-

স্ত্রী অহল্যাকে নিয়ে গৌতম মুণি মহারাষ্ট্রের এই স্থানে বাস করতেন। সেখানে নদী নিয়ে আসার জন্য শিবের কাছে প্রার্থনা পূরণ করেন মহাদেব। সেই কাহিনিকে স্মরণ করে শিবের ত্রিম্বকেশ্বর মন্দির স্থাপিত হয়েছে। এখানে একটি বিশেষ পাথর খচিত মুকুটও রয়েছে , যা দেখতে ভিড় করেন অনেকেই।

৯। বৈদ্যনাথ মন্দির-

ঝাড়খন্ডের বৈদ্যনাথ মন্দির ঘিরেও রয়েছে অনেক পৌরাণিক কথা। একবার নিজের উপাসনায় শিবকে খুশি করেন রাবণ। প্রত্যুত্তরে শিবের কাছ থেকে একটি জ্যোতির্লিঙ্গ পান তিনি। শিব বলেন, যে এই লিঙ্গ লঙ্কা যাওয়ার আগে যেন রাবণ কোথাও না রাখেন। যেখানে রাখা হবে সেখানেই এটি প্রতিষ্ঠিত হবে। এরপর লঙ্কা ফেরার পথে রাবণ সেই লিঙ্গকে একটি ছোট বালকের হাতে দিয়ে , তা ধরে রাখতে বলেন। সেই বালক লিঙ্গটি রেখে দেন ভূমিতে, আর সেখানেই প্রতিষ্ঠিত হয় শিব মন্দির। পরে জানা যায় সেই বালকটি শিবপুত্র গণেশ। যে জায়গায় সেই জ্যোর্তিলিঙ্গ রাখা হয়, তার স্থান ছিল ঝাড়খণ্ডে ,যেখানে মন্দিরটি গড়ে উঠেছে।

১০। নাগেশ্বর-

গুজরাতের দ্বারকায় রয়েছে এই জ্যোর্তিলিঙ্গের মন্দির। দৌরাকা রাক্ষসের হাত থেকে ভক্তকে রক্ষা করার পর শিবের মহিমার আরাধনায় স্থাপিত হয় নাগেশ্বর মন্দির।

১১। রামেশ্বরম-

তামিলনাড়ুর রামেশ্বরমেও জ্যোর্তিলিঙ্গ রূপে শিবের অবস্থান। এখানে শিবের দুটি লিঙ্গ রয়েছে। একটি লিঙ্গ পুজা করতেন সীতা, অন্যটি হনুমান দ্বারা পুজিত হত বলে কথিত রয়েছে। রাবণকে পরাজিত করে, এসে এখানেই শিবের আরাধনা করেন রাম। সেই থেকে রামেশ্বরমে শিবের দুটি জ্যোর্তিলিঙ্গ স্থাপিত আছে।

১২। গ্রীষ্ণেশ্বর-

ঔরাঙ্গাবাদের গ্রীষ্ণেশ্বর মন্দির মহারাষ্ট্রের অজন্তা ও ইলোরার খুবই কাছাকাছি অবস্থিত। এখানেও এক ভক্তের ডাকে সাড়া দিতে শিব নিজের মহিমা বিচ্ছুরণ করেন বলে পুরাণে বর্ণিত রয়েছে। এই মন্দিরকে কুসুমেশ্বর মন্দিরও বলা হয়।

মহা শিবরাত্রির সব পৌরাণিক কাহিনী জানতে দেখুন খবর অনলাইন।

সাম্প্রতিকতম

হরিয়ানার নুহতে পুণ্যার্থী ভর্তি বাসে আগুন, ৯ জনের মৃত্যু, আহত ২০-র বেশি

চণ্ডীগঢ়: কুণ্ডলী-মানেসার-পালওয়াল এক্সপ্রেসওয়েতে নুহ জেলার ধুলাভাত গ্রামের কাছে একটি চলন্ত বাসে আগুন লেগে মৃত্যু...

ভোট শেষ হওয়ার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ভোটের হিসেব প্রকাশ: ২৪ মে-র মধ্যে কমিশনের জবাব চায় সুপ্রিম কোর্ট

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঠিক কত ভোট পড়ল তার প্রকৃত তথ্য ভোটগ্রহণের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে...

বর্ষাকে ভারতীয় ভূখণ্ডে নিয়ে আসার জন্য চলতি গরম খুব গুরুত্বপূর্ণ, সোমবার থেকে ফের ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা

শ্রয়ণ সেন বর্ষার দামামা বেজে গিয়েছে। দক্ষিণ আন্দামান সাগরে ১৯ মে, রবিবার বর্ষা প্রবেশ করে...

কানহাইয়া কুমারের উপর হামলা, ভিডিও প্রকাশ করে চাঞ্চল্যকর দাবি হামলাকারীর

নয়াদিল্লি: শুক্রবার উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে নির্বাচনী প্রচারের সময় 'ইন্ডিয়া' জোট প্রার্থী কানহাইয়া কুমারের ওপর হামলা...

আরও পড়ুন

বড়দিনে উৎসব মুখর কলকাতা, ভিড় উপচে পড়ল পার্ক স্ট্রিট থেকে চিড়িয়াখানায়

কলকাতা: বড়দিনে জনসমুদ্র উপচে পড়ল পার্ক স্ট্রিটের রাস্তায়। বড়দিনের রাতে পার্ক স্ট্রিটের ভিড় যেন...

রাখি বন্ধন উৎসবে বাড়িতে বানাতে পারেন এই ৪ রকমের রাখি, কীভাবে বানাবেন জেনে নিন

রাখি বন্ধন উৎসব প্রায় এসেই গেল। ভাই-বোনের ভালোবাসার প্রতীক রাখি বন্ধন উৎসব। হিন্দু পঞ্জিকা অনুযায়ী শ্রাবণ মাসের পূর্ণিমায় এই উৎসব পালিত হয়। রাখি উপলক্ষে বাজারে বিভিন্ন ধরনের রাখি কিনতে পাওয়া যায়।

রাখিবন্ধনে উৎসবে কী ভূমিকা শ্রীকৃষ্ণ ও দ্রৌপদী, শুভ ও লাভ, যম ও যমুনার? এই অজানা কাহিনীগুলি কী জানেন?  

রাখি পূর্ণিমার পবিত্র উৎসব হল ভারতীয় উপমহাদেশের ভাই বোনের প্রেম প্রীতির অন্যতম বন্ধন উৎসব। এই উৎসব যত না উৎসবের আনন্দ তার চেয়েও অনেক বেশি দায়িত্বের।